আজ থেকে বিধি-নিষেধ শুরু

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ১৩, ২০২২ ১১:১৪:১৯ পূর্বাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক
করোনা ভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট অমিক্রনের বিস্তার ঠেকানোর জন্য বাংলাদেশে আজ থেকে কিছু বিধি-নিষেধ কার্যকর হচ্ছে। গত ১০ই জানুয়ারি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এসব নির্দেশনা জারি করা হয়েছিল।

কিন্তু গণ-পরিবহনে ধারণক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচলের যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল সেটি আজ কার্যকর হচ্ছে না। বুধবার সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের সাথে বাস মালিকদের এক বৈঠকের পর জানানো হয় আগামী শনিবার থেকে এটি কার্যকর করা হবে।

বিআরটিএ চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ বুধবার সাংবাদিকদের বলেন, “কিছুদিন আগে আমরা ভাড়া বৃদ্ধি করেছিলাম জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে। এ সময়ে ভাড়া বৃদ্ধি আমরা যৌক্তিক মনে করছি না।”

তবে মালিক পক্ষ সব আসনে যাত্রী পরিবহন করতে চায়। তাদের দাবি হচ্ছে, ভাড়া বৃদ্ধি না করলে ধারণক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী নিয়ে বাস চালানো সম্ভব নয়।

তবে আজ থেকে যেসব বিষয় কার্যকর হচ্ছে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে:
– রেঁস্তোরায় বসে খাবার খাওয়া এবং আবাসিক হোটেলে থাকার জন্য অবশ্যই করোনা টিকা সনদ দেখাতে হবে;
– দোকান, শপিংমল ও বাজারে ক্রেতা-বিক্রেতা এবং হোটেল-রেঁস্তোরাসহ সব জনসমাগমস্থলে বাধ্যতামূলকভাবে সবাইকে মাস্ক পরতে হবে। না হলে আইনানুগ শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে।
– অফিস-আদালতসহ ঘরের বাইরে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে ব্যত্যয় রোধে সারাদেশে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করতে হবে;
– ১২ বছরের ঊর্ধ্বের সকল ছাত্র-ছাত্রীকে শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক নির্ধারিত তারিখের পরে টিকা সনদ ছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না;
– স্থলবন্দর, সমুদ্রবন্দর ও বিমানবন্দরসমূহে স্ক্রিনিং-এর সংখ্যা বাড়াতে হবে। পোর্টসমূহে ক্রু-দের জাহাজের বাইরে আসার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করতে হবে। স্থলবন্দরগুলোতেও আগত ট্রাকের সাথে শুধুমাত্র ড্রাইভার থাকতে পারবে। কোন সহকারী আসতে পারবে না। বিদেশগামীদের সঙ্গে আসা দর্শনার্থীদের বিমানবন্দরে প্রবেশ বন্ধ করতে হবে,
– বিদেশ থেকে আগত যাত্রীসহ সবাইকে বাধ্যতামূলক কোভিড-১৯ টিকা সনদ প্রদর্শন ও Rapid Antigen Test করতে হবে;

দ্রুত বাড়ছে অমিক্রনের বিস্তার
স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বুধবার এক অনুষ্ঠানে জানিয়েছেন, হাসপাতালে যেখানে রোগীর সংখ্যা ছিল দুইশ থেকে আড়াইশ, সেখানে এখন রোগীর সংখ্যা হাজার ছাড়িয়ে গেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, গত এক সপ্তাহে বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েছে ১৭০ শতাংশ।প্রায় তিন মাস যাবত শনাক্তের হার তিন শতাংশের কম থাকলেও এখন সেটি প্রায় ১২ শতাংশ।

এমন অবস্থায় সবাইকে টিকা নেয়া এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার উপর জোর দিচ্ছেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।কিন্তু বাংলাদেশে এখনো পর্যন্ত মোট জনসংখ্যার এক-তৃতীয়াংশের কম দুই ডোজ টিকা পেয়েছেন।

আগামী একমাসের মাসের মধ্যে চার কোটি টিকা দেবার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। এজন্য টিকা দেবার নিয়ম শিথিল করা হয়েছে।

জনপ্রিয়