ইউক্রেনের দিকে অগ্রসর হচ্ছে রাশিয়ার সামরিক বহর

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২২ ২:১১:০৮ অপরাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক
ইউক্রেনের দিকে অগ্রসর হতে শুরু করেছে রাশিয়ার সামরিক বহর। কৃষ্ণসাগরে নামা যুদ্ধজাহাজ ও সাবমেরিন থেকে শুরু করে স্বল্পপাল্লার ব্যলিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র, ট্যাংক এবং কামানও এগিয়ে নিচ্ছে রাশিয়া। ইউক্রেন সীমান্তবর্তী উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় এলাকা দিয়ে এগোচ্ছে বলছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত ভিডিও এবং ছবির অবস্থান শনাক্ত করে এমনটি দাবি করেছে সংবাদমাধ্যমটি।

ইউক্রেনের খারকিভ শহরের সীমান্তবর্তী রাশিয়ার বেলগরদ অঞ্চলে একটি সেনাবহর ইউক্রেন সীমান্ত এলাকার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, এমন ভিডিও যুক্ত করা হয়েছে সিএনএনের প্রতিবেদনে। বেলগরদ অঞ্চলে রুশ সামরিক উপস্থিতির বহু প্রমাণ অবশ্য এর আগেই পাওয়া গেছে।

এসব ভিডিওর বেশিরভাগই রাশিয়ার সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ইউটিউব এবং টিকটক অ্যাকাউন্টে পাওয়া। কিছু স্যাটেলাইট ছবিও রয়েছে এর মধ্যে। গত রোববার এসব ভিডিও আপলোড করা হয়।

ভিডিওতে দেখা অগ্রসরমান রুশ সেনাবহর সীমান্ত থেকে ১৫ মাইলের মতো দূরত্বে সেরেটেনো গ্রামে বলে শনাক্ত করেছে সিএনএন।

রাশিয়ার ভরোনেজ নামের ইউক্রেন সীমান্তবর্তী এলাকায় ট্রেন থেকে নামানো রুশ সেনাবাহিনীর ট্যাংকগুলো রাতের বেলায়ও চলাচল করতে দেখা গেছে। এগুলো রাশিয়ার ফার্স্ট গার্ডস ট্যাংক আর্মির বলে বিশ্লেষকদের বরাত দিয়ে জানিয়েছে সিএনএন।

এ ছাড়া রাশিয়ার কুরস্ক শহর থেকেও বিপুল পরিমাণ যুদ্ধ সরঞ্জাম দক্ষিণের দিকে এগিয়েছে। গত শনিবার ধারণ করা একটি ভিডিওতে এ তথ্য জানা গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ার একটি অলাভজনক সংস্থার রাশিয়া বিষয়ক বিশেষজ্ঞ মাইকেল কফম্যান সিএনএনকে বলেন, ‘বিশেষ করে ইস্কান্দার-এম স্বল্পপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ইউনিট এবং কামানের অগ্রসর হওয়াটা উদ্বেগজনক।’

যুদ্ধসংঘাত শুরু হলে ইউক্রেনের স্থায়ী স্থাপনাগুলোতে হামলা চালাতে এগুলো ব্যবহার করা হতে পারে। ২৫০ মাইল পর্যন্ত দূরত্বে আঘাত হানতে পারে ইস্কান্দার-এম ক্ষেপণাস্ত্র।

অন্যদিকে, বেলারুশের পোল্যান্ড সীমান্তবর্তী অঞ্চলে বেলারুশের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়া চলছে রাশিয়ার। সেখানে রয়েছে রকেট লঞ্চারসহ ভারী ভারী অস্ত্রের মজুদ রয়েছে।

আরো পড়ুন : একদিনে বিশ্বে করোনায় ৭ হাজারের বেশি মৃত্যু

জনপ্রিয়