উঠে গেলো বিধিনিষেধ

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২২ ১২:০৪:০১ অপরাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক
৩৯ দিন পর করোনার বিধিনিষেধহীন প্রথম দিন শুরু হয়েছে আজ। সর্বশেষ জারি করা প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, গতকাল সোমবার রাত ১২টা পর্যন্ত কার্যকর ছিল এ বিধিনিষেধ। তবে বিধিনিষেধ উঠে গেলেও মাস্ক পরতে রয়েছে সরকারের নির্দেশনা।

করোনা সংক্রমণ ফের বেড়ে যাওয়ায় গত ১০ জানুয়ারি সারা দেশে বিধিনিষেধের প্রজ্ঞাপন জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। ওই প্রজ্ঞাপনে ১১টি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল, যা ১৩ জানুয়ারি থেকে কার্যকর হয়।

২১ জানুয়ারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধসহ নতুন করে পাঁচ দফা নির্দেশনা দেয় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। তাতে ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়। এরপর আরও দুই সপ্তাহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।

এদিকে গত ৩ ফেব্রুয়ারি বিধিনিষেধ বাড়ানো হয়। বিধিনিষেধ বাড়িয়ে দেওয়া প্রজ্ঞাপনে ২১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মেয়াদ ঘোষণা করা হয়। বলা হয়, করোনাভাইরাসজনিত রোগের (কোভিড-১৯) নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের প্রাদুর্ভাব ও বাংলাদেশে এ রোগের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় আগের জারি করা সব বিধিনিষেধ ও নির্দেশনার সঙ্গে দুটি শর্ত সংশোধন করে সার্বিক কার্যাবলী/চলাচলে বিধিনিষেধ আরোপ করা হলো। এই বিধিনিষেধ আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম প্রজ্ঞাপনে ঘোষিত সময় শেষের আগের দিন গত রোববার সাংবাদিকদের জানান, ‘২২ ফেব্রুয়ারি থেকে বিধিনিষেধ উঠে যাচ্ছে।’

সে সময় ‘২২ ফেব্রুয়ারির পর আর বিধিনিষেধ দেওয়া হবে কি না’ জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘না, আর বিধিনিষেধ দেওয়া হবে না। এটা আর বাড়ছে না।’ একই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘তবে যেখানে যাবেন, সবাইকে মাস্ক পরতে হবে। সবাইকে সেটা নিশ্চিত করার অনুরোধ করা হয়েছে।’

এরপর আজ থেকে উঠে গেল করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে দেওয়া বিধিনিষেধ। খুলে দেওয়া হলো মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষ। আর আগামী ২ মার্চ থেকে খুলে দেওয়া হবে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষের তালা বলে জানিয়েছে সরকার।

আরো পড়ুন : করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত আরো কমেছে

জনপ্রিয়