উন্নয়ন ও অগ্রগতির প্রশংসা করতে পারে না বিএনপি : তথ্যমন্ত্রী

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : রবিবার, এপ্রিল ২১, ২০১৯ ১০:৩৮:৩৬ অপরাহ্ণ
Information Minister
তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ছবি : এনটিভি

অনলাইন ডেস্ক:
‘বিএনপি বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতির প্রশংসা করতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, তাদের নিজেদের কোনো পরিকল্পনা ছিল না। অর্থনীতিবিদরা বলেছেন তারা (বিএনপি) কোনো পরিকল্পনা করেনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।’

আজ রোববার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটি আয়োজিত সেমিনারে এসব কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী। ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির ১০ বছর’ শীর্ষক এই আলোচনায় দেশের প্রখ্যাত অর্থনীতিবিদ এবং দলের কেন্দ্রীয় নেতারা অংশ নেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য আমির হোসেন আমু বলেন, ‘বিএনপি দীর্ঘদিন রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকা সত্বেও, শুধু সঠিক পরিকল্পনার অভাবে তারা দেশের কাঙ্খিত উন্নয়ন করতে পারেনি।’

উন্নয়ন কীভাবে করতে হয় তা সঠিক পরিকল্পনা ও নেতৃত্ব দিয়ে শেখ হাসিনা দেখিয়ে দিয়েছেন বলে জানান ড. হাছান মাহমুদ।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘দেশে নেতিবাচক রাজনীতি না থাকলে দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি আরো অন্তত ২ শতাংশ বৃদ্ধি পেত। তারপরও বাংলাদেশ ধারাবাহিকভাবে সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি ধরে রাখা বিশ্বের প্রথম পাঁচটি দেশের অন্যতম।’

ড. হাছান বলেন, ‘২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দুইটি প্রধান অঙ্গীকার ছিল, দিনবদল আর ডিজিটাল বাংলাদেশ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যুগান্তকারী নেতৃত্বে আমরা দুইটি অঙ্গীকার পালনে সমর্থ হয়েছি। বাংলাদেশ এখন স্বল্পোন্নত দেশের কাতার থেকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। আমরা বিশ্বে মিঠা পানির মাছ ও সবজি উৎপাদনে ৪র্থ ও আলু উৎপাদনে ৭ম। আর ডিজিটাল বাংলাদেশে ১৭ কোটি মানুষের দেশে ১৫ কোটি মোবাইল সিম ১৪ কোটি গ্রাহক ব্যবহার করছে।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘শুধু তাই নয়, পঞ্চাশের দশকে ৪৭ মিলিয়ন জনসংখ্যা নিয়ে খাদ্য ঘাটতির দেশ, যার ভূমি একটুও বাড়েনি, সেই দেশ আজ খাদ্যশস্যে উদ্বৃত্ত এবং রপ্তানিকারক; কৃষিখাতে এ অভূতপূর্ব ঘটনা আজ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ এবং বিশ্ব খাদ্য সংস্থারও গবেষণার বিষয়।’

আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনন্য গতিশীল নেতৃত্বে ২০০৮ সালের ৬শত ডলারের মাথাপিছু আয় তিনগুণ বেড়ে এখন প্রায় ২ হাজার ডলার, রপ্তানি ১০ মিলিয়ন থেকে আজ ৪২ মিলিয়ন ডলার, মানুষের গড় আয়ু ৬৫ থেকে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭২.৮ বছর। মানবিক, সামাজিক ও অর্থনৈতিক সকল সূচকে আমরা পাকিস্তানসহ বিশ্বের অনেক দেশ থেকে এগিয়ে আছি, যা পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর মহাআক্ষেপের বিষয়।’

আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে পরিকল্পনা কমিশন সদস্য ড. শামসুল আলম, অর্থনীতিবিদ ড. কাজী খলীকুজ্জামান, আওয়ামী লীগ ঢাকা দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, আওয়ামী লীগ প্রচার উপ-কমিটির যুগ্মসম্পাদক আমিন উদ্দীন আমিন প্রমুখ সেমিনারে গত দশ বছরে এদেশের বিস্ময়কর উন্নয়নচিত্র তুলে ধরে এর নানা দিক নিয়ে আলোচনায় অংশ নেন।

সেমিনারে ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়ন ও অগ্রগতির ১০ বছর’ পুস্তিকার মোড়ক উন্মোচন করেন অতিথিবৃন্দ।

এদিকে তথ্যমন্ত্রণালয় জানিয়েছে, রোববার বিকেলে ঢাকায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইন্সটিটিউট সম্মেলন হলে উপ-কমিটির প্রথম সভায় বক্তব্য দেন তথ্যমন্ত্রী ড হাছান মাহমুদ।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন মিডিয়া, প্রচার ও ডকুমেন্টেশন উপ-কমিটির আহবায়ক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‌’দেশে ও বিদেশে প্রচলিত ও ডিজিটাল গণমাধ্যমের সাহায্যে ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে উদযাপন করা হবে।’

সভায় উত্থাপিত বিভিন্ন প্রস্তাবনাকে স্বাগত জানিয়ে মন্ত্রী ড. হাছান আগামী পাঁচদিনের মধ্যে লিখিত আকারে সেগুলো সদস্য সচিবের কাছে জমা দিতে বলেন। প্রস্তাবনাগুলোর মধ্যে রয়েছে জন্মশতবার্ষিকীতে দেশি পত্রিকায় ৪ থেকে ৮ পাতার বিশেষ ক্রোড়পত্র, আন্তর্জাতিক খ্যাতিমান পত্রিকায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ওপর বিশেষ নিবন্ধ প্রকাশসহ দেশে বিদেশে আলোচনা সভা অনুষ্ঠান।

সভায় জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, প্রচার উপকমিটির সদস্য সচিব তথ্যসচিব আবদুল মালেক, বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্টের প্রধান নির্বাহী মাশুরা হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার প্রধান সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, ৭১ টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজাম্মেল হক বাবু, জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম, বিএফইউজের সাবেক সভাপতি ইকবাল সোবহান চৌধুরী, নাগরিক টিভির পরিচালক আব্দুন নূর তুষার, সাংবাদিক মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, বিএফইউজে’র মহাসচিব শাবান মাহমুদ, ঢাকা ট্রিবিউন সম্পাদক জাফর সোবহান, দৈনিক আমাদের অর্থনীতি সম্পাদক নাঈমুল ইসলাম খান, সাংবাদিক রাহুল রাহা, বক্তব্য রাখেন। এনটিভি।

আরও পড়ুন: সাত হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দেবে সরকার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

জনপ্রিয়