করোনামুক্তির পর থাকে মানসিক রোগাক্রান্তের শঙ্কা : গবেষণা

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২২ ১১:৩৪:৫১ পূর্বাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক
সাম্প্রতিক এক গবেষণা বলছে—যাঁরা কোভিডে আক্রান্ত হওয়ার পর সেরে উঠেছেন, তাঁদের মানসিক সমস্যার সম্মুখীন হওয়ার আশঙ্কা অনেক বেশি থাকে। খবর দ্য নিউইয়র্ক টাইমসের।

ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি স্কুল অব মেডিসিনের পক্ষ থেকে এক লাখ ৫৩ হাজার ৮৪৮ জনের ওপর করা এক গবেষণা বলছে—কোভিড থেকে মুক্তির এক বছর পরেও আক্রান্তদের মধ্যে দেখা যাচ্ছে মানসিক স্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিভিন্ন সমস্যা।

কোভিড-১৯ মহামারির তৃতীয় বছরে পা রাখার সময়টায় অগণিত মানুষর মধ্যে দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন ধরনের অনিশ্চয়তা, বিচ্ছিন্নতা এবং মানসিক স্বাস্থ্য সংক্রান্ত অসুস্থতা। অনেকে এখনও মারাত্মকভাবে মানসিক স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সমস্যায় আক্রান্ত। সাম্প্রতিক গবেষণা বলছে—যাঁরা এরই মধ্যে কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন, তাঁদের মানসিক সমস্যার সম্মুখীন হওয়ার আশঙ্কা অনেক বেশি। এ সমস্যাগুলোর মধ্যে রয়েছে—দুশ্চিন্তা, উদ্‌বেগ, অবসাদ ও মাদকাসক্তির মতো একাধিক উপসর্গ। এমনকি, দেখা যাচ্ছে আত্মহত্যার প্রবণতাও।

গবেষকদের আরও দাবি—যাঁরা করোনা থেকে সেরে উঠেছেন, তাঁদের ঘুমের ব্যাঘাতজনিত অসুখ হওয়ার আশঙ্কা ৪১ শতাংশ বেশি। আর, স্নায়ু-অনুভূতি হ্রাসের সমস্যা সংক্রান্ত রোগের আশঙ্কা প্রায় শতকরা ৮০ ভাগ বেশি থাকে। এ সমস্যাগুলোর মধ্যে রয়েছে স্মৃতিবিলোপ, বিভ্রান্তি, মনসংযোগের সমস্যা ও ব্রেন ফগের মতো উপসর্গ।

এ ছাড়া সমীক্ষায় দেখা গেছে—যাঁরা কোভিডে সংক্রামিত হননি, তাঁদের তুলনায় যাঁরা কোভিড আক্রান্ত হয়েছিলেন, তাঁদের মানসিক স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা ৬০ শতাংশ বেশি।

বিশেষজ্ঞদের মতে, যদিও কম-বেশি সবাই প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে মহামারির দ্বারা আক্রান্ত হয়েছেন। তবুও এ কথা অস্বীকার করা যাবে না যে, মানসিক চাপে ভোগা মানুষের মধ্যে মহামারির প্রভাব হয়েছে সুদূরপ্রসারী। কিন্তু এখনও মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে মানুষের অবহেলার অন্ত নেই। তাই অনতিবিলম্বে এ বাস্তবতাকে স্বীকার করা জরুরি বলেই মত বিশেষজ্ঞদের।

আরো পড়ুন : এখনই কোভিডের বিধিনিষেধ তুলে দেওয়া বোকামি : ডব্লিউএইচও

জনপ্রিয়