কুমিল্লা সিটি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেন বিএনপির দুই নেতা

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, মে ১৪, ২০২২ ১২:০৫:২৯ অপরাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক
কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এবার বিএনপির দলীয়ভাবে প্রার্থী না দেওয়ার ঘোষণায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন দলটির দুই প্রভাবশালী নেতা। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন কুমিল্লা সিটির বর্তমান মেয়র মনিরুল হক সাক্কু এবং মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নিজাম উদ্দিন কায়সার।

অন্যদিকে, আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন নিয়ে প্রার্থী হয়েছেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত।

গত রোববার স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে কুমিল্লার নির্বাচন অফিসে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বিএনপির গুরুত্বপূর্ণ দুই নেতা।

দুই বারের নির্বাচিত মেয়র স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু বলেন, ‘আমি আমার রাজনৈতিক অনুসারী ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের ইচ্ছায় এবারও নির্বাচনে যাচ্ছি। আমার শুভাকাঙ্ক্ষী ও সিটি করপোরেশনবাসী আবার আমাকে মেয়র হিসেবে চাইছে বলে এবারও নির্বাচন করতে হচ্ছে।’

অপর প্রার্থী কুমিল্লা মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এবং কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক নিজাম উদ্দিন কায়সার বলেন, “‘নতুন প্রজন্মের নতুন কুমিল্লা’—এ স্লোগান নিয়ে আমি নির্বাচনের মাঠে নেমেছি। নির্যাতিত ও নিপীড়িত কুমিল্লাবাসীর পক্ষে কথা বলতে আমাকে নির্বাচন করতে হচ্ছে। মানুষ এখন পরিবর্তন চায়। আমি নির্বাচিত হলে সিটি করপোরেশনবাসীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করব।”

আগামী ১৫ জুন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচন। ২০১১ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়া কুমিল্লা সিটিতে এটি তৃতীয় নির্বাচন। এর আগের দুটি নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু জয়ী হয়েছেন। এবারের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে প্রার্থী হয়েছেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত। এখন পর্যন্ত কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে পাঁচ জন এবং কাউন্সিলর পদে ১৮৩ জন প্রার্থী মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয় গত ২৫ এপ্রিল। মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ তারিখ আগামী ১৭ মে। আগামী ১৯ মে মনোনয়ন যাচাই-বাছাই করা হবে। ২৬ মে মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন। ২৭ মে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে। আসন্ন নির্বাচনে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনে একজন হিজড়াসহ মোট ভোটার দুই লাখ ২৭ হাজার ৭৯২ জন। এর মধ্যে নারী ভোটার এক লাখ ১৬ হাজার ১৯১ জন এবং পুরুষ ভোটার এক লাখ ১১ হাজার ৬০০ জন।

আরও পড়ুন : ধর্ম ব্যবসায়ীদের প্রতি জিরো টলারেন্স : জয়

জনপ্রিয়