শিরোনাম

কৃষকদের পাশে দাঁড়াবে ২০ দল

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : সোমবার, মে ১৩, ২০১৯ ১০:৪৭:১২ অপরাহ্ণ
20 Party
আজ সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে ২০ দলের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন নজরুল ইসলাম খান। ছবি : এনটিভি

অনলাইন ডেস্ক:
আজ সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে ২০ দলের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন নজরুল ইসলাম খান। ছবি : এনটিভি

বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দল কৃষকদের পাশে দাঁড়াবে বলে জানিয়েছেন বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ২০ দলের সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খান।  তিনি বলেন, ধানের মূল্য কম হওয়ায় কৃষক মারাত্মক ক্ষতির শিকার হয়েছেন। ২০ দল আজকের বৈঠকে এমন ঘটনায় উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করছে এবং শিগগিরই জোটের উদ্যোগে আমরা প্রেসক্লাবের সামনে একটা মানববন্ধন করব।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, সারা দেশে ২০ দলের উদ্যোগে কৃষকদের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একইভাবে বেকারত্ব দূর করার জন্য আমাদের দেশের সাধারণ মানুষ, পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। সেই বিষয়টিকেও ২০ দল গুরুত্ব দিয়ে দেখছে।

আজ সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে ২০ দলের বৈঠক শেষে নজরুল ইসলাম খান এসব কথা বলেন।

২০ দলের এ সমন্বয়ক বলেন, দেশে আইনের শাসন না থাকায় ক্রমবর্ধমানভাবে নারী ও শিশু নির্যাতন, হত্যা, ধর্ষণ, খুন, বেকারত্ব বাড়ছে। জ্বালানি তেল ও গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির সরকারি পাঁয়তারার বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা শেষে যত দ্রুত সম্ভব জনস্বার্থ বিষয়ক কর্মসূচি গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এসব বিষয়ে ২০ দল জোটগতভাবে এবং জোটের শীর্ষ নেতারা যার যার উদ্যোগে কর্মসূচি গ্রহণ করবে।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, ২০ দলীয় জোটের মধ্যে সমন্বয় বৃদ্ধির জন্য বেশি বেশি সভা করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য ২০ দল জোর দাবি জানাচ্ছে। ১৬ মাস ধরে মিথ্যা অভিযোগে বিচারের নামে কারারুদ্ধ করে রাখা বাংলাদেশের ইতিহাসে রাজনৈতিক নিষ্ঠুরতার সবচেয়ে নিন্দনীয় দৃষ্টান্ত বলে সভা মত প্রকাশ করে এবং খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সভায় দেশের গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠার জন্য ২০ দল শিগগিরই দেশব্যাপী কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সভায় ২০ দলের ঐক্য আরো শক্তিশালী করে দেশের গণতন্ত্র রক্ষায় রত আরো যেসব দল মত আছে তাদের সঙ্গে একযোগে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য আন্দোলনের ঘোষণা দেবে।

এর আগে বিকেল ৪টায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ বৈঠক শুরু হয়। সম্প্রতি আন্দালিভ রহমান পার্থের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি-বিজেপি জোট থেকে বের হওয়ার ঘোষণা দেয়। পার্থকেও আজকের বৈঠকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। কিন্তু তিনি বৈঠকে যোগ দেননি।

এ ছাড়া লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল অলি আহমেদ বৈঠকে যোগ দেননি। তাঁকেও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। তবে এলডিপির মহাসচিব রেদোয়ান আহমেদ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) মোস্তফা জামাল হায়দার, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল অবসরপ্রাপ্ত সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি-এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, খেলাফত মজলিসের মহাসচিব আহমেদ আব্দুল কাদের, ইসলামী ঐক্যজোটের অ্যাডভোকেট আব্দুর রাকিব ও পিপলস পার্টির সৈয়দ মাহবুব হোসেন প্রমুখ।

আরও পড়ুন : নৌকার বিরোধীতাকারীরা জাতীয় নির্বাচনে মনোনয়ন পাবেন না : হানিফ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

জনপ্রিয়