চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের অধিনায়ক হলেন মিরাজ

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২০, ২০২২ ১১:৩১:২৩ পূর্বাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক
এবারের বিপিএলে তারুণ্যনির্ভর দল গড়েছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। তবে, তরুণদের নিয়ে গড়া দলটিকে আনকোরা বলার সুযোগ নেই। কারণ, জাতীয় দলের হয়ে খেলা অনেকেই আছেন বন্দরনগরীর দলটিতে। বাংলাদেশ দলে খেলা নাসুম আহমেদ, মেহেদী মিরাজ, আফিফ হোসেন, শরিফুল ইসলাম ও শামীম আহমেদের মতো তরুণেরা আছেন দলটিতে। এর মধ্যে মেহেদী হাসান মিরাজকে অধিনায়কের দায়িত্ব দিয়েছে চট্টগ্রাম।

গতকাল বুধবার রাতে টিম মিটিংয়ের পর অধিনায়কের নাম ঘোষণা করেন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের ম্যানেজিং ডিরেক্টর কে এম রিফাতুজ্জামান। এ সময় অধিনায়ক মিরাজকে অধিনায়কের ক্যাপ পরিয়ে দেন দলের কোচ পল নিক্সন।

দলটির ম্যানেজিং ডিরেক্টর বলেন, ‘আমরা একটি পরিবার। পরিবারের সবাই মিলে আলোচনা করে এবং কোচের সঙ্গে পরামর্শ করে এমন একজনকে বেছে নেয়ার চেষ্টা করা হয়েছে, যিনি গোটা পরিবারের দায়িত্ব নিতে পারবেন। যাঁর কাছে দলটাই হবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।’

দায়িত্ব গ্রহণের পর নিজের প্রতিক্রিয়ায় চ্যালেঞ্জার্স অধিনায়ক মিরাজ বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, আমি এ বছর চট্টগ্রামের হয়ে প্রথম খেলছি। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স আমাকে যে সম্মান দিয়েছে, নিজের সেরাটা দিয়ে তার প্রতিদান দিতে চেষ্টা করব। অভিজ্ঞদের পাশাপাশি ইয়াং ও প্রমিজিং খেলোয়াড়দের নিয়ে দলটা গড়া হয়েছে, যাঁরা আগামীতে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিতে পারবেন।’

দায়িত্ব গ্রহণের পর দলের সিনিয়রদের সাপোর্ট চেয়েছেন মিরাজ, ‘কর্তৃপক্ষ তরুণদের ওপর আস্থা রেখেছেন। আমি মনে করি, আমাদের সবার চ্যালেঞ্জ নিতে হবে। এটা আমাদের দায়িত্ব। দলে একাধিক সিনিয়র খেলোয়াড় রয়েছেন, যাঁরা অনেকদিন বাংলাদেশকে সার্ভিস দিয়েছেন। আমি তাঁদের সহযোগিতা চাচ্ছি। সবাই সহযোগিতা করলে অধিনায়ক হিসেবে আমার কাজটা সহজ হবে। দলকে ভালো একটা জায়গায় নিতে নিজেদের সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করব। টিম ম্যানেজমেন্টকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সমর্থকদের উদ্দেশে বলব—আপনারা আমাদের পাশে থাকুন। আমরা সেরাটা দিয়ে ভালো কিছু করতে চেষ্টা করব।’

আগামীকাল ২১ জানুয়ারি থেকে মাঠে গড়াচ্ছে দেশের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টির সবচেয়ে বড় আসরটি। টুর্নামেন্টের ফাইনাল হবে ১৮ ফেব্রুয়ারি। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও ফরচুন বরিশালের ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে বিপিএল। ২৭ দিনের এ টুর্নামেন্টে ৩৪টি ম্যাচ থাকছে।

জনপ্রিয়