মটবাড়িয়ায় চাচার প্রাণনাশের হুমকিতে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ভাতিজা

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : মঙ্গলবার, আগস্ট ২৩, ২০২২ ৮:০৬:৪১ অপরাহ্ণ

মজিবর রহমান, পিরোজপুর প্রতিনিধি
পিরোজপুর মঠবাড়িয়া উপজেলায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে চাচা রুহুল আমিন কর্তৃক ভাতিজা মজিবর রহমানকে প্রাণনাশের হুমকি ও একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে এলাকাছাড়া অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার টিকিকাটা ইউনিয়নের সূর্যমনি গ্রামের মৃত আব্দুর রব ফকিরের ছেলে মোঃ বাবুল ফকির, কামাল ফকির মজিবর রহমান বাদল, মনিরুল ইসলাম ও মোস্তাফিজুর রহমান নান্টু ফকির পৈতৃক সূত্রে প্রাপ্ত সেনের টিকিকাটা মৌজায় এসএ ১৩০৪,১৫৪৭,১৫৯৭ নং খতিয়ানের ৩৬৬৪,৩৬৬৬ ৩৬৬৮,৩৬৬৯,৩৬৭০,৩৬৭৬,৩৬৮৭, ৩৬৯০, ৩৮৯৫, ৩৬৯১ নং দাগে ৫- ৪৮ শতাংশ আবাদি জমিতে চাচা রুহুল আমিন ও তার সহযোগী আমির হোসেন বিরোধীয় আবাদি জমি চাষাবাদে বাধা সৃষ্টি করে প্রাণনাশের হুমকিতে।

এ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলছিল। ওই বিরোধের জেরে চাচা রুহুল আমিন, মোস্তাফিজুর রহমান ও মজিবুর রহমান বাদল গংদের বিরুদ্ধে হয়রানি করার জন্য মঠবাড়িয়া থানায় মামলা দেন। ।অগণিত জিডি করেন। চাচা ভাতিজাদের বিরুদ্ধে মামলা ও জিডি করেই ক্ষান্ত হয়নি।

মঠবাড়িয়া ডিবি দক্ষিণের কাছে ভাতিজা মজিবর রহমান বাদল এর কাছে আগ্নেয় অস্ত্র আছে এমন অভিযোগ দিয়ে এলাকাছাড়া করেন। বর্তমানে মজিবর রহমান বাদল মিথ্যা অভিযোগ মাথায় নিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

মজিবর রহমান বাদল জানান, চাচা রুহুল আমিন দীর্ঘদিন ধরে জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয় এর লিডার হিসেবে বরিশাল, ঝালকাঠি-পিরোজপুর ও বাগেরহাটে চাকরি করার সুবাদে পুলিশকে ব্যবহার করে আমাদেরকে হয়রানির উদ্দেশ্যে একের পর এক মিথ্যা নানা অভিযোগ দিয়ে আসছেন। চাচা এতই চালাক যে তার আপন বোনের সাথেও প্রতারণা করেছে। বোনের ছেলে নাতিকে বিদেশে নেওয়ার কথা বলে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেন। পরে বোন প্রতারণার অভিযোগ এনে রুহুল আমিনের বিরুদ্ধে বরগুনা জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রতারণার মামলা করেন। ওই মামলায় তিনি দীর্ঘদিন হাজতবাস করেন ।

এ বিষয় প্রতিপক্ষ রুহুল আমিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে জমি সংক্রান্ত বিরোধের সত্যতা নিশ্চিত করলেও হয়রানীর অভিযোগ অস্বীকার করেন।

আরও পড়ুন :রামপাল তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে চুরি হওয়া মালামাল উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৪

জনপ্রিয়