টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২২ : জমিয়ে জিতল নেদারল্যান্ডস

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : রবিবার, অক্টোবর ১৬, ২০২২ ৬:০৪:৫৭ অপরাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক:
সংযুক্ত আরব আমিরাতের পেসার জুনায়েদ সিদ্দিকির স্লোয়ারে বোকা বনে সহজ ক্যাচ তুলে দিলেন নেদারল্যান্ডসের টিম প্রিঙ্গল। আমিরাতের অধিনায়ক সিপি রিজওয়ান ম্যাচের প্রেশারেই কিনা সহজতর ক্যাচটি হাত থেকে ফেলে দিলেন। মোটে ১১১ রানে আটকানোর ম্যাচে সেই এক ক্যাচেই কি বিশ্বকাপের মূল পর্বের টিকিট হাত থেকে ফেলে দিলেন রিজওয়ান?

সেই উত্তর সময় বলবে, তবে নিশ্চিতভাবে বলা যায় নিজেদের জয়টাই ফেলে দিলেন আমিরাতের অধিনায়ক। রুদ্ধশ্বাস এক ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ১ বল বাকি থাকতে হারল সংযুক্ত আরব আমিরাত। বিশ্বকাপ জমিয়ে তোলা কঠিন ম্যাচটিতে ৩ উইকেটে জয় পেয়েছে ডাচরা।

অস্ট্রেলিয়ার গিলংয়ের সাইমন্ডস স্টেডিয়ামে টসে জিতে আগে ব্যাটিং করতে নেমে ৮ উইকেটে ১১১ রান তোলে সংযুক্ত আরব আমিরাত। জবাবে ১৯ ওভার ৫ বলে ৭ উইকেটে ১১২ রান তোলে নেদারল্যান্ডস।

লক্ষ্য তাড়া না করতে চাওয়ায় আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের অধিনায়ক রিজওয়ান। তবে অধিনায়কের এমন সিদ্ধান্তকে যথার্থ প্রমাণ করতে পারেননি দলটির ব্যাটসম্যানরা। ডাচদের বিপক্ষে রান তুলতে বেশ বেগ পেতে হয় আমিরাতের ক্রিকেটারদের।

দলটির পক্ষে মাত্র দুইজন ব্যাটসম্যান একশ স্ট্রাইক রেট রাখতে পেরেছেন। এরমধ্যে কাশিফ দাউদ ১৪ বলে ১৫ এবং বাসিল হামিদ করেছিলেন ৪ বলে ৪ রান। আমিরাতের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪১ রান করা মোহাম্মদ ওয়াসিম খেলেছেন ৪৭ বল। এছাড়া ভৃত্য অরবিন্দ ২১ বলে ১৮ রান এবং চিরাগ সুরি ১২ রান করতে খেলেছেন পাক্কা ২০ বল।

ডাচদের পক্ষে বাস দি লিড ৩ ওভারে ১৯ রানের বিনিময়ে নিয়েছেন ৩ উইকেট। ফ্রেড ক্লাসেন ৪ ওভারে মাত্র ১৩ রানের বিনিময়ে নিয়েছেন ২ উইকেট।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১১ ওভার পর্যন্ত সহজ জয়ের পথেই এগোচ্ছিল নেদারল্যান্ডসরা। টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের মাঝারি মানের ইনিংসে ১১ ওভারেই ৩ উইকেটেই ৭০ রান তুলে ফেলে ডাচরা। তবে এরপরেই জুনায়েদ সিদ্দিকের এক ওভারে ২ উইকেট এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সর্বকনিষ্ঠ আয়ানের ১ উইকেটে ম্যাচে ফেরে আরব আমিরাত।

এরপর শেষ ওভার পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যায় আমিরাত। তবে শেষ হাসি আর হাসতে পারেনি। স্কট এডওয়ার্ডসের অপরাজিত ১৬ রানে জয় পায় নেদারল্যান্ডস। এছাড়াও ডাচদের পক্ষে ম্যাক্স ও’ডুড করেন সর্বোচ্চ ২৩ রান। চার ব্যাটসম্যান ফেরে দশের ঘরে।

জুনায়েদ ২৩ রানের বিনিময়ে নেন ৩ উইকেট। এছাড়াও চারজন বোলার নেন ১টি করে উইকেট।

আরও পড়ুন : নামিবিয়ার কাছে শ্রীলঙ্কার হার

জনপ্রিয়