তিন শতাধিক নাম পেয়েছে সার্চ কমিটি 

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২২ ৫:৪৩:২৬ অপরাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক
প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) ও কমিশনার পদে নিয়োগের জন্য তিন শতাধিক ব্যক্তির নাম পেয়েছে সার্চ বা অনুসন্ধান কমিটি। আজ শনিবার বিশিষ্টজনদের সঙ্গে দুই দফায় সার্চ কমিটির বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

আনোয়ারুল ইসলাম জানান, ৩২৯ জনের নাম এসেছে সার্চ কমিটির কাছে। এর মধ্যে রাজনৈতিক দলগুলোর কাছ থেকে ১৩৬, পেশাজীবীদের কাছ থেকে ৪০, ব্যক্তিগত পর্যায় থেকে ৩৪ এবং ই-মেইলসহ অন্যান্য পর্যায় থেকে ৯৯ জনের নাম এসেছে।

নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠনে যোগ্য ব্যক্তি খুঁজে বের করতে প্রথম সেশনের বৈঠকের পর দ্বিতীয় সেশনের বৈঠক শুরু করেছে সার্চ কমিটি। বেলা ১টা ৫ মিনিটে দ্বিতীয় সেশনের বৈঠকটি শুরু করেন সার্চ কমিটির প্রধান সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান।

দ্বিতীয় সেশনের বৈঠকে অংশ নিয়েছেন এফবিসিসিআইয়ের সাবেক পরিচালক ও দৈনিক সমকালের প্রকাশক এবং চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ কে আজাদ, ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত, যুগান্তরের সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, একাত্তর টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী মোজাম্মেল হক বাবু, প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, এনটিভির হেড অব নিউজ জহিরুল আলম, দৈনিক ইত্তেফাকের সম্পাদক তাসমিমা হোসেন, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, সাংবাদিক আবেদ খান, সাংবাদিক ও কলামিস্ট স্বদেশ রায় এবং আজকের পত্রিকার সম্পাদক গোলাম রহমান।

সার্চ কমিটির আমন্ত্রণে আজ শনিবার বেলা ১১টা ২০ মিনিটে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট ভবনের জাজেস লাউঞ্জে শুরু হয় প্রথম বৈঠক। বৈঠকে এ সময় ২০ বিশিষ্ট নাগরিককে আমন্ত্রণ জানানো হলেও উপস্থিত ছিলেন ১৪ জন। বৈঠকটি চলে বেলা ১২টা ৩৭ মিনিট পর্যন্ত।

নির্বাচন কমিশন সংক্রান্ত অনুসন্ধান কমিটির কাছে কারও নাম প্রস্তাব করেননি বিশিষ্টজনেরা। তাঁরা বৈঠকে সরকারের সুবিধা পাওয়া কেউ যাতে নিয়োগ না পায়, সে আহ্বান জানিয়েছেন।

সুপ্রিম কোর্টের কনফারেন্স রুমে আজ শনিবার বেলা ১১টার পর বিশিষ্টজনদের সঙ্গে ঘণ্টাব্যাপী প্রথম বৈঠক শেষে বেরিয়ে ড. আসিফ নজরুল সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। দেশের বিশিষ্ট নাগরিকদের সঙ্গে প্রথম বৈঠকে বসেছে ইসি সংক্রান্ত সার্চ কমিটি। আজ সকাল ১১টা ২৫ মিনিটে সুপ্রিম কোর্টের কনফারেন্স রুমে এ বৈঠক শুরু হয়।

এদিকে প্রথম দফা সার্চ কমিটির বৈঠক শেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল বলেন, ‘সার্চ কমিটি আমাদের আমন্ত্রণ জানিয়ে সবার কথাই মন দিয়ে শুনেছেন। আমাদের সবার একটা বিষয়েই জোর ছিল যে, আগের কোনো সরকারের বিশেষ সুবিধাভোগীরা যেন নতুন নির্বাচন কমিশনে সুযোগ না পায়। বিশেষ সুবিধা বলতে, যাঁরা বিভিন্ন সরকারের মেয়াদে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ পেয়েছেন বা সরাসরি সরকারের ঘনিষ্ঠ লোক বলে পরিচিত এমন কাউকে বোঝানো হয়েছে।

বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন সার্চ কমিটির প্রধান, আপিল বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, সার্চ কমিটির সদস্যদের মধ্যে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি এস এম কুদ্দুস জামান, মহা-হিসাবনিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক মুসলিম চৌধুরী, সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) চেয়ারম্যান সোহরাব হোসাইন, সাবেক নির্বাচন কমিশনার মুহাম্মদ ছহুল হোসাইন এবং কথাসাহিত্যিক অধ্যাপক আনোয়ারা সৈয়দ হক।

বৈঠকে ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ, সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ এফ হাসান আরিফ, বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, বিচারপতি মনসুরুল হক চৌধুরী, জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ড. শাহদীন মালিক, সাবেক অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এম কে রহমান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. বোরহান উদ্দিন খান ও ড. আসিফ নজরুল, ব্রতীর শারমিন মুরশিদ, ফেমার মুনিরা খান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামালসহ ১৪ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন। আজ দুপুর পৌনে ১টায় বিশিষ্টজনদের সঙ্গে সার্চ কমিটির দ্বিতীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে, নতুন প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ করার জন্য যোগ্য প্রার্থী বাছাই করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগসহ মোট ২৪টি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল অনুসন্ধান কমিটির কাছে নাম প্রস্তাব করেছে। এ ছাড়া ছয়টি পেশাজীবী সংগঠন থেকে প্রস্তাব এসেছে।

নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর ঠিকানায় গত বুধবার চিঠি দিয়ে নাম দেওয়ার অনুরোধ করে সার্চ কমিটি।

আরো পড়ুন : করোনায় মৃত্যু ও শনাক্তের হার কমেছে

জনপ্রিয়