দুর্নীতি হলে প্রকল্পের কাজ কী এত দ্রুত শেষ হতো? সংসদে প্রধানমন্ত্রী

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : বুধবার, জানুয়ারি ১১, ২০২৩ ৬:২৩:৫৭ অপরাহ্ণ

চলমান বার্তা অনলাইন ডেস্ক:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশে মেগা প্রজেক্টে দুর্নীতি সত্যি হলে এত প্রজেক্টের কাজ কী অল্প সময়ে শেষ হতো? মেগা প্রকল্পে কখন, কোথায় ও কত টাকা দুর্নীতি হয়েছে, কেউ জানাতে পারলে তার জবাব দেব।

সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে আজ বুধবার (১১ জানুয়ারি) বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কানাডার ফেডারেল কোর্টে যে মামলা হয় সে মামলায় বলা হয়েছে সকল অভিযোগ মিথ্যা। বাংলাদেশ দুর্নীতি সত্যি হলে এত প্রজেক্টের কাজ কী অল্প সময়ে শেষ হতো? ইংল্যান্ডে বিদ্যুতের দাম ১৫০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। সেখানে মুদ্রাস্ফীতি ১৩ দশমিক ৩ শতাংশ। সেখানে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। সেখানে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের জন্য প্রত্যেক পরিবারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া প্রত্যেকটি বিল পরীক্ষা করা হয়। সেই বিলে কম এলে সাথে সাথে ব্যবস্থা নেওয়া হয় এবং ফাইন করা হয়। বাংলাদেশে সে অবস্থা এখনও সৃষ্টি হয়নি।’

শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘কুইক রেন্টালের প্রয়োজন ছিল। কুইক রেন্টাল বিদ্যুৎকেন্দ্র এনেছি বলেই আমরা জনগণকে বিদ্যুৎ দিতে পেরেছি। আমরা যখন সরকার গঠন করি তখন ৩ হাজার ২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমরা পেয়েছিলাম। বিএনপি-জামায়াতের আমলে বিদ্যুৎ উৎপাদন হ্রাস করা হয়। মানুষ বিদ্যুৎ, গ্যাস পেতো না, দিনের পর দিন বিদ্যুতের জন্য হাহাকার ছিল। ইন্ডাস্ট্রিগুলো চলতে পারত না বিদ্যুতের জন্য। কুইক রেন্টালে যদি দুর্নীতি হতো তা হলে এতদিন মানুষ বিদ্যুত পেত না। কারণ বিএনপির আমলে এই বিদ্যুতের ওপর দুর্নীতি করেছে বলে ওয়ার্ল্ড ব্যাংক টাকা দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছিল।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘কয়েকদিন শুধু লোডশেডিং দিয়েছিলাম তাই মানুষের মধ্যে হাহাকার। সে জন্য আবার কুইক রেন্টাল আবার চালু রাখতে হয়েছে।’

আরও পড়ুন : বঙ্গবন্ধুর জন্য কবর তৈরি করেছিল পাকিস্তান : প্রধানমন্ত্রী

জনপ্রিয়