নবীর জীবন, আমাদের জন্য শিক্ষনীয় (১ম পর্ব)

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : সোমবার, মে ২০, ২০১৯ ১:১২:০২ অপরাহ্ণ
Mohammed s.
ছবি : প্রতীকী

মাহমুদুন্নবী জ্যোতি:
সম্মানিত পাঠক, চলমান বার্তা ইতোপূর্বে পবিত্র রমজান উপলক্ষ্যে নবী স. এর সংক্ষিপ্ত জীবনী ৬ পর্ব ধারাবাহিকভাবে প্রকাশ করেছে। আজ থেকে প্রকাশ শুরু হলো, “নবীর জীবন, আমাদের জন্য শিক্ষনীয়”। আজ দেখুন ১ম পর্ব।

বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার নব্বই শতাংশই মুসলমান। মুসলিম দেশ হিসেবে বিশ্বে পরিচিতি আমাদের। ইসলাম শান্তির ধর্ম, মানবতার ধর্ম। আমরা জন্মসূত্রে মুসলমান হলেও আমাদের ব্যক্তিগত জীবনে, পারিবারিক জীবনে, সমাজ জীবনে তথা রাষ্ট্রীয় জীবনে নিজেদের কি ইসলামি মূল্যবোধ অনুযায়ী পরিচালিত করতে পারছি, নাকি শুধুমাত্র নামেই মুসলমান হয়ে জীবনের মূল্যবান সময় পার করছি। আমাদের ব্যক্তিগত জীবন থেকে শুরু করে রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে ইসলামের চর্চা বা ইসলামি মূল্যবোধ সমুন্নত রাখতে পারিনি বলেই কি আজ এমন অরাজকতা বিরাজ করছে প্রতিটি স্তরে। কিন্তু কেন? আমরা মুসলমান হিসেবে গর্ববোধ করি। ধর্ম সম্পর্কে সবাই কম-বেশি জ্ঞানও রাখি। কথায় কথায় নবীজির উদাহরণ দিয়ে থাকি। কিন্তু কিভাবে? আমরা যেহেতু নবীজিকেই আমাদের আইডল বা অনুকরণীয় মনে করি সেক্ষেত্রে তাঁর জীবনের জন্য শিক্ষনীয় কিছু অংশ আলোকপাত করা দরকার।

হযরত মোহাম্মদ স. এর জীবনের পাঁচটি দিক পাঠকদের জন্য তুলে ধরার চেষ্টা করা হল। (১) জন্মের পর হতে নবুয়তের আগ পর্যন্ত, (২) নবুয়ত প্রাপ্তির পর হতে মদীনায় হিজরতের আগ পর্যন্ত, (৩) মদীনায় হিজরতকালীন সময়, (৪) মক্কা বিজয় এবং (৫) সর্বশেষ মক্কা দখল থেকে শুরু করে পৃথিবী ছেড়ে বিদায়ের ক্ষণ পর্যন্ত।

(১) জন্মের পর হতে নবুয়তের আগ পর্যন্ত:
আমরা জানি মোহাম্মদ সা. এর জন্মের পূর্বেই তাঁর পিতা জনাব খাজা আবদুল্লাহ মাত্র পচিঁশ বৎসর বয়সে বিবাহের এক বছর পর সিরিয়া থেকে বাণিজ্য থেকে ফেরার পথে বনী আদী ইবনে নাজ্জারের আবাসস্থলে মৃত্যুবরণ করেন। মাতা আমেনা শিশু মোহাম্মদ স. কে পিতার কবর জিয়ারত শেষে ফেরার পথে আবওয়া নামক স্থানে তিনিও চলে যান না ফেরার দেশে। মোহাম্মদ স. হয়ে যান এতিম। দাসী উম্মু আইমান নবীজিকে মক্কায় নিয়ে আসেন। দাদা আবদুল মুত্তালিবের ¯েœহ ছায়ায় তিনি পালিত হতে থাকেন। আট বৎসর বয়সে দাদার মৃত্যুর পর চাচা আবু তালিব মোহাম্মদ স. এর লালন পালনের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এ সময় তিনি আযইয়াদ উপত্যাকায় মুক্ত আকাশের নীচে মেষ চড়াতেন। নবী নিজের চারিত্রিকি বৈশিষ্ট্য দিয়ে মুগ্ধতা ছড়ান কোরাইশসহ সকল গোত্রের মানুষের মাঝে। তিনি ছিলেন সদালাপী, পরপোকারী, কখনো মিথ্যা বলেননি, সকলের কাছে ছিলেন বিশ্বাসী যে কারণে ‘আল-আমিন’ অর্থাৎ বিশ্বাসী খেতাবে ভূষিত হন। তিনি সকল মানুষের প্রতি সম্মান জানান, যেকোন বিবাদ বা কলহ তিনি যুক্তি দিয়ে মীমাংসা করতেন। অর্থাৎ যে সকল গুণের কারণে একজন মানুষকে সত্যিকারের মানুষ হিসেবে গণ্য করা হয় তার সবগুলো গুণ ছিল হযরত মোহাম্মদ স. এর মাঝে। যৌবনে তিনি চাচা আবু তালিবের সাথে ব্যবসা করেন। ব্যবসায়িক কাজে তিনি এ সময় সিরিয়া সফর করেন। নিজের ব্যবসায়ী সততা সবাইকে মুগ্ধ করে। তিনি ব্যবসায়ে অসাধুতার আশ্রয় নেননি। সাংগঠনিক ব্যক্তিত্ব প্রকাশ পায় ‘হিলফুল ফুজুল’ এ নিজেকে সম্পৃক্ত করার মাধ্যমে। মাত্র সতের বছর বয়সে তিনি এই সংগঠনের সাথে যুক্ত হন। হিলফুল ফুজুলের দফা ছিল পাঁচটি। (১) দেশ থেকে অশান্তি দূর করা। (২) পথিকের জান-মালের হিফাজাত করা। (৩) অভাবগ্রস্থদের সাহায্য করা। (৪) মাযলুমের সাহায্য করা এবং (৫) কোন যালিমকে মক্কায় আশ্রয় না দেয়া। ২৫ বছর বয়সে নবীজি স. তৎকালীন আরবের অন্যতম ধনাঢ্য মহিলা, সচ্চরিত্রা বিবি খাদিজা রা. কে বিয়ে করেন। নবীজি তিন ছেলে ও চার মেয়ের জনক ছিলেন। তবে ছেলে তিনজন প্রাপ্ত বয়সের আগেই অর্থাৎ বাল্যকালেই ইন্তেকাল করেন।

শিক্ষনীয়:
আল্লাহ মানুষকে যে কারণে সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ জীব হিসেবে ঘোষণা করেছেন, তার সবগুলো গুণের অধিকারী ছিলেন মোহাম্মদ স.। প্রতিটি ধর্মের অনুসারীদের মধ্যেও এই দিকগুলো পরিলক্ষিত হয়। বাল্যকালে এতিম হলেও এ নিয়ে কোন অভিযোগ বা অনুযোগ ছিল না। স্রষ্টার প্রতি অপরিসীম বিশ্বাসই ছিল তাঁর চলার একমাত্র শক্তি। শত প্রতিকুলতার মাঝেও নিজেকে মেলে ধরেছেন সমাজের প্রতিটি স্তরের মানুষের কাছে। মিথ্যা বলা, অন্যের সম্পদ হরণ করা, অন্যায় করা, জুলুম করা, মানুষ হত্যা করা, চুরি-ডাকাতি করা, মহিলাদের ইজ্জত লুন্ঠন করা, অসততার সাথে ব্যবসা না করা, বড়দের সম্মান না করা, ছোটদের ¯েœহ না করা ইত্যাদি বিষয়গুলো সকল ধর্মেই জোড়ালোভাবে নিষেধ করা হয়েছে। একজন মানুষ হিসেবে এই সকল গুণাবলী আমাদের মধ্যে থাকা অবশ্যই দরকার। নবীজির ব্যক্তিগত জীবন, পারিবারিক জীবনে, কর্মজীবনই হওয়া উচিত একজন সত্যিকারের মুসলমানের একমাত্র আদর্শ।

(আগামী পর্বে থাকছে মদীনায় হিজরত ও আমাদের শিক্ষা। চোখ রাখুন চলমান বার্তায়)

আরও পড়ুন >>

মহানবী হযরত মোহাম্মদ স. এর সংক্ষিপ্ত জীবনী (১ম পর্ব)

মহানবী হযরত মোহাম্মদ স. এর সংক্ষিপ্ত জীবনী (২য় পর্ব)

মহানবী হযরত মোহাম্মদ স. এর সংক্ষিপ্ত জীবনী (৩য় পর্ব)

মহানবী হযরত মোহাম্মদ স. এর সংক্ষিপ্ত জীবনী (৪র্থ পর্ব)

হযরত মোহাম্মদ স. এর সংক্ষিপ্ত জীবনী (৫ম পর্ব)

হযরত মোহাম্মদ স. এর সংক্ষিপ্ত জীবনী (শেষ পর্ব)

Leave a Reply

Your email address will not be published.

জনপ্রিয়