পরীক্ষার্থীদের দেহ তল্লাশীর নামে চলছে হয়রানী

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, এপ্রিল ২০, ২০১৯ ৯:৪৩:২৩ পূর্বাহ্ণ
charse
ছবি: সংগৃহীত

মোঃ আখতার রহমান, রাজশাহী: রাজশাহীর বাঘায় সারা দেশের ন্যায় এইচএসসি পরীক্ষায় নকল প্রতিরোধ কল্পে পরীক্ষা হলে প্রবেশের পূর্বেই পরীক্ষার্থীদের দেহ তল্লাশী করছেন পরীক্ষা কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ।

গত (১৬/০৪/২০১৯) মঙ্গলবার বাঘা আঃ হামিদ দানিশমন্দ (রঃ) ফাজিল মাদ্রাসার পরীক্ষা কেন্দ্র ভেনুতে তিনটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষার্থীরা দুইটি কেন্দ্রের আওতায় পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করে। একটি বাঘা ইসলামী একাডেমী কেন্দ্র এবং অপরটি বাঘা মহিলা বানিজ্যিক এন্ড ভোকেশনাল কেন্দ্র। তবে বাঘা আঃ হামিদ দানিশমন্দ (রঃ) ফাজিল মাদ্রাসার পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীদের হয়রানী করছেন বলে দাবী করেন বাঘা মহিলা বাণিজ্যিক এন্ড ভোকেশনাল কেন্দ্র সচিব আবু সাইদ মোহাম্মদ সিদ্দিক। তিনি অভিযোগ করে আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন, একবার কেন্দ্রে প্রবেশ করার পূর্বে নকল রোধে পরীক্ষার্থীদের দেহ তল্লাশী করা হয়।

অপরদিকে পরীক্ষা শুরু হওয়ার একঘন্টার মধ্যে পুনরায় আনছার ভিডিপি এবং পুলিশ সদস্য দিয়ে পরীক্ষার্থীদের পায়ের তালু থেকে মাথার চুল পর্যন্ত তল্লাশী করাটা আদৌ নীতিবাচক নয় বলে দাবী করেন কেন্দ্র সচিব আবু সাইদ মোহাম্মদ সিদ্দিক। তিনি আরও বলেন এধরনের পরীক্ষার্থীদের আকস্মিক দেহ তল্লাশীতে পরীক্ষার্থীদের মনযোগ নষ্ট হয়েছে। যার ফলে পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার ভাল ফলাফল না হওয়ার আশংখা করছেন। এই কেন্দ্র সচিব বিগত ২০১৮ সনেও এধরনের অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছিল বলেও উল্লেখ করেন।

কেন্দ্রের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের দায়িত্বে ছিলেন উপজেলা প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা আহাদ আলী। তিনি বলেন আকস্মিক পরীক্ষা আরম্ভ হবার একঘন্টার মধ্যে এধরনের দেহ তল্লাশীতে পরীক্ষার্থীদের মনযোগ কিছুটা বিঘœ ঘটেছে সত্য,তবে দেহ তল্লাশী করে একজন পরীক্ষার্থীর নিকট হতে অবৈধ কাগজ পাওয়া যায়। অবৈধ কাগজ রাখার অপরাধে উক্ত পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার করা হয়েছে। পরীক্ষার্থী বহিস্কারের বিষয়ে নিশ্চিত করেন ইসলামি একাডেমির অধ্যক্ষ ও কেন্দ্র সচিব আবদুল কাদের। তিনি বলেন চলতি বছরের কোন পরীক্ষায় সে অংশ গ্রহণ করতে পারবেনা।

পরীক্ষার্থী বহিস্কারের বিষয়ে কেন্দ্র সচিব আবু সাইদ মোহাম্মদ সিদ্দিক বলেন, বাঘা ইসলামি একাডেমি কেন্দ্রে যেখানে জোতরাঘব উচ্চ বিদ্যালয় এ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীরাও ছিল। এ কেন্দ্রে মোট ১০৯ জন পরীক্ষার্থী বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে হিসাব বিজ্ঞান বিষয়ে অংশ গ্রহণ করে। জোতরাঘব উচ্চ বিদ্যালয় এ্যান্ড কলেজের একজন পরীক্ষার্থীর নিকট হতে যে অবৈধ কাগজ পাওয়া যায় যা প্রশ্নের সঙ্গে সামঞ্জস্য না থাকলেও বিষয়ের সঙ্গে মিল ছিল।

আরও পড়ুন: লিজা হত্যার প্রতিবাদে কোনাবাড়িতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

জনপ্রিয়