পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হলেন বিলাওয়াল ভুট্টো; দলের মাঝে বিভক্তি

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : বুধবার, এপ্রিল ১৩, ২০২২ ১০:৫১:৫৯ পূর্বাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক
বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারিকে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী করা নিয়ে তাঁর দল পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) মধ্যে বিভেদ দেখা দিয়েছে। পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) নেতা শাহবাজ শরিফ প্রধানমন্ত্রী হওয়ায় পিপিপির অনেক জ্যেষ্ঠ নেতা চাচ্ছেন না বিলাওয়াল এই সরকারে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব নিক।

তবে দলের আরেকটি অংশের নেতারা মনে করছেন, তরুণ প্রজন্ম ও বহির্বিশ্বের কাছে স্বচ্ছ ভাবমূর্তির কারণে পররাষ্ট্রমন্ত্রী পদে বিলাওয়াল দায়িত্ব নিলে তাঁর রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের জন্য ইতিবাচক হবে। খবর দ্য ডনের।

শাহবাজ শরিফের অধীনে পাকিস্তানের জোট সরকারের কে হচ্ছেন নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী, তা নিয়ে অনেকেরই আগ্রহ রয়েছে। এই পদে পাকিস্তানের অন্যতম বৃহত্তম দল পিপিপির চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারির নামই শোনা যাচ্ছে। সম্প্রতি আন্তর্জাতিক একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ৩৩ বছর বয়সী বিলাওয়াল ভুট্টো বলেন, মন্ত্রিত্বের বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে তাঁর দল।

এ অবস্থায় বিষয়টি নিয়ে পিপিপির মধ্যে দুটি পক্ষ তৈরি হয়েছে। বিলাওয়ালকে যাঁরা পররাষ্ট্রমন্ত্রী পদে দেখতে চাচ্ছেন তাঁদের যুক্তি, এতে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কাজ করার অভিজ্ঞতা হবে বিলাওয়ালের। ভবিষ্যতে প্রধানমন্ত্রী হলে ওই অভিজ্ঞতা তাঁর কাজে লাগবে বলে মনে করছে দলের এই অংশ।

বিলাওয়ালের একজন ঘনিষ্ঠ পিপিপি সংসদ সদস্য বলেছেন, ‘আমি আমার চেয়ারম্যানকে দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হওয়ার পরামর্শ দিয়েছি।’

অপরদিকে যে পক্ষটি বিলাওয়ালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পদে দায়িত্ব নেওয়ার বিরোধিতা করছে, তারা বলছেন, পিপিপি চেয়ারম্যান বিলাওয়াল শাহবাজ শরিফের অধীনে ফেডারেল মন্ত্রিসভার অংশ হওয়া উচিত নয়। কারণ এটি ক্ষমতাসীন জোটের দ্বিতীয় বৃহত্তম দলের প্রধান হওয়ার মর্যাদাকে ক্ষুণ।ন করবে। তাঁদের বিশ্বাস, পিপিপি কর্মীরা তাঁদের চেয়ারম্যানকে পিএমএল-এন-এর প্রধানমন্ত্রীর অধীনে কাজ করা পছন্দ করবেন না।

আরো পড়ুন : শাহবাজ শরীফের শপথ অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত প্রেসিডেন্ট

জনপ্রিয়