বাংলা নববর্ষের আন্তরিক শুভেচ্ছা

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : রবিবার, এপ্রিল ১৪, ২০১৯ ১২:২০:০৪ অপরাহ্ণ
Bangla year

সময়ের স্রোতে হারিয়ে গেল আরও একটি বছর, ১৪২৫। যাত্রা শুরু হলো নতুন বর্ষের, ১৪২৬। আনন্দ উৎসবমূখর পরিবেশে বরণ করা হয় বাংলা বর্ষকে। বাঙালি সংস্কৃতিতে বাংলা বর্ষবরণ ধর্মমত নির্বিশেষে সকলের কাছে এক প্রাণের উৎসবে পরিণত হয়েছে। স্বাধীনতার পূর্ব থেকে শুরু রমনা বটমুলের অনুষ্ঠানের কলেবর বৃদ্ধি পেয়েছে, আনন্দ উৎসবে নতুন যোগ হয়েছে মঙ্গল শোভাযাত্রা। বিশ্ব ঐতিহ্যে স্থান পাওয়া এক ঘন্টার এই মঙ্গল শোভাযাত্রার প্রস্তুতি নিতে সময় লাগে প্রায় একমাস।

দেশ জুড়ে বিরাজ করে এক নির্মল আনন্দের আবহ। রাজধানী ঢাকা থেকে শুরু করে বিভাগীয় শহর, জেলা শহর, থান শহর ছাড়িয়ে প্রতিটি গ্রামের আঙিনায় বিরাজ করে বৈশাখী উৎসব। গ্রামের বৈশাখী মেলায় রয়েছে নাগরদোলা, পুতুল নাচ, হরেক রকম মাটির জিনিষপত্র, খেলনা। এছাড়া ঐতিহ্যবাহী নানা পদের খাবার। গ্রামীণ সেই সব খাবার এখন দেখা মেলে রমনা পার্কের মেলায়। বাংলার চিরায়ত ঐহিত্য ধরে রাখতে হলে এর বিস্তৃতি আরও বৃদ্ধি করতে হবে।

বিগত বছরটি ছিল নির্বাচনী বছর। জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর শুরু হয় নিরুত্তাপ উপজেলা নির্বাচন। এ নির্বাচনে জনগণের মনে তেমন কোনো প্রভাব পড়েছে বলে দেখা যায়নি। ক্ষমতাসীনদের একক অংশগ্রহণের নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি ছিল অত্যন্ত কম। অবস্থা দৃষ্টে মনে হচ্ছে, জনগণ বোধ হয় কোনো এক অজানা আশঙ্কায় ভোটাধিকার প্রয়োগ থেকে নিজেদের গুটিয়ে নিচ্ছেন। বিষয়টি টেকসই গণতন্ত্রের জন্য অবশ্যই সুখকর নয়।

বছরের শেষের দিকে দেশে ধর্ষণের ঘটনা বৃদ্ধি পায়। সর্বশেষ ফেনী সোনাগাজীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত রাফি জাহানকে পুড়িয়ে মারা ঘটনায় গোটা দেশ স্তম্ভিত হয়ে যায়। একই সময়ে দিনাজপুরে ঘটে যৌন হয়রানীর ঘটনা। দু’দিন আগে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী যৌন নিপীড়নের কবল থেকে রক্ষা পেতে চলন্ত বাস থেকে লাফ দিয়ে আহত হয়েছেন। সর্বশেষ গতকাল কুমিল্লার দেবীদ্বারে ১৩ বছরের এক কিশোরীকে মুখে গামছা গুঁজে ধর্ষণ করেছে এক মসজিদের ইমাম। দেশজুড়ে নিষ্পাপ এ সকল কিশোরীদের উপর অমানবিক যৌন নির্যাতনের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে শিশুরা তথা অভিভাবকেরা। দ্রুত বিচারের মাধ্যমে অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। যাতে করে নতুন করে কেউ এমন অপরাধ করতে সাহস না পায়।

সময়ের সাথে এগিয়ে যাবে আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি। বিশ্বের দরবারে মাথা উচুঁ দাড়াবে বাংলাদেশ। সকল প্রকার অন্যায়, অবিচার দূর হয়ে যাক, প্রতিষ্ঠা পাক ন্যায়, সত্য ও সুন্দর। কলুষতামুক্ত সমাজ হোক আমাদের দেশের প্রতিটি আঙিনা। সবার জীবন হয়ে উঠুন দুঃশ্চিন্তামুক্ত আনন্দময়। নিরাপদ থাকুন আমাদের সকল শিশু, কিশোর-কিশোরী, নারী-পূরুষ সহ সর্বস্তরের জনগণ। সমাজ জুড়ে বিরাজ করুক সুখ, সমৃদ্ধি ও অনাবিল আনন্দ। চলমান বার্তা পত্রিকার অগণিত পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীদের জন্য রইল বাংলা নববর্ষের আন্তরিক শুভেচ্ছা।

আরও পড়ুন: আজ পহেলা বৈশাখ, ১৪২৬

Leave a Reply

Your email address will not be published.

জনপ্রিয়