ভুল করে পাকিস্তানে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ল ভারত

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শুক্রবার, মার্চ ১১, ২০২২ ১১:০৯:৩২ অপরাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক
রুটিন পরীক্ষার সময় ‘কারিগরি ত্রুটির’ কারণে ভারতের একটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষিপ্ত হয়ে ‘দুর্ঘটনাবশত’ পাকিস্তানে গিয়ে পড়েছে। সেজন্য দুঃখ প্রকাশ করেছে দিল্লি।

ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় শুক্রবার এক বিবৃবিতে বলেছে, বিষয়টি তারা ‘গুরুত্বের সঙ্গে’ নিয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। খবর রয়টার্সের।

ভারতের ওই ক্ষেপণাস্ত্রটি পাকিস্তানের মাটিতে গিয়ে পড়ে গত বুধবার। তবে ওই ক্ষেপণাস্ত্রে কোনো ওয়ারহেড (বিস্ফোরক) ছিল না।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এমন ঘটনা ‘অপ্রীতিকর পরিণতি’ ডেকে আনতে পারে বলে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছিল পাকিস্তানের তরফ থেকে। এরপরই ভারত বিবৃতি দিয়ে তাদের অবস্থান ব্যাখ্যা করল ভারত।

ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, ‘৯ মার্চ নিয়ম মাফিক পরীক্ষার সময়, কারিগরি ত্রুটির কারণে দুর্ঘটনাবশত ক্ষেপণাস্ত্রটি নিক্ষিপ্ত হয়। ক্ষেপণাস্ত্রটি পাকিস্তানের ভূখণ্ডে পড়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক, তবে কারো প্রাণহানি হয়নি, এটা স্বস্তির খবর।’

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, সরকার ‘বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে এবং একটি উচ্চ পর্যায়ের কোর্ট অব ইনকোয়ারির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

এর আগে শুক্রবার পাকিস্তানের পররাষ্ট্র দপ্তর জানায়, ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে ইসলামাবাদে ভারতের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্সকে ডেকে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনাকে বিনা উসকানিতে আকাশসীমা লঙ্ঘন বলছে দেশটি। এর ফলে যাত্রীবাহী ফ্লাইট এবং বেসামরিক মানুষের জীবন ঝুঁকিতে পরার সম্ভাবনা ছিল জানিয়ে তদন্ত দাবি করে পাকিস্তান।

ভারতকে সতর্ক করে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘এ ধরনের অবহেলার কারণে অপ্রীতিকর পরিস্থিতির জন্য সতর্ক হয়ে ভবিষ্যতে সীমা লঙ্ঘনের এমন পুনরাবৃত্তি এড়াতে যেন কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া হয়।’

এর আগে প্রতিবেশী দেশ দুটিকে এ ধরনের দুর্ঘটনা এবং ত্রুটির বিষয়ে সতর্ক করেন সামরিক বিশেষজ্ঞরা। ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে এপর্যন্ত তিনটি যুদ্ধ হয়েছে এবং অনেকবার সামরিক সংঘর্ষও হয়।

আরো পড়ুন : কিয়েভের কাছাকাছি অবস্থান নিচ্ছে রুশ সেনাবাহিনি

জনপ্রিয়