মক্কার গ্র্যান্ড মসজিদের সাবেক ইমামের ১০ বছরের কারাদণ্ড

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শুক্রবার, আগস্ট ২৬, ২০২২ ১১:০৪:৩৮ পূর্বাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক:
সৌদি আরবের আপিল আদালত মক্কার গ্র্যান্ড মসজিদের সাবেক ইমাম শেখ সালেহ আল তালিবের দশ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন। আরব বিশ্বে গণতন্ত্র নিয়ে কাজ করা সংস্থা (ডিএডব্লিউএন) একটি টুইটে এ রায়ের কথা জানিয়েছে।

ওই টুইটে বলা হয়েছে, রিয়াদ একটি বিশেষ আদালত শেখ সালেহ আল তালিবের খালাসের রায় বাতিল করে নতুন এ রায় দিয়েছে। খবর দ্য সিয়াসাত ডেইলি ও মিডল ইস্ট আইয়ের।

সৌদি বন্দিদের নিয়ে কাজ করা প্রিজনার্স অব কনসায়েন্স অ্যাকাউন্টও খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছে। তারা বলছে যে, ‘আমরা নিশ্চিত হয়েছি যে আপিল আদালত ইমামের খালাসের রায় বাতিল করে দশ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন।’

২০১৮ সালের আগস্টে সৌদি কর্তৃপক্ষ গ্র্যান্ড মসজিদের ইমাম সালেহ আল তালিব গ্রেপ্তার করে। ওই সময় তাঁর মতো আরও বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। সালেহ আল তালিবকে ঠিক কী কারণে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল সে সম্পর্কে নিশ্চিত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। সৌদি কর্তৃপক্ষও আনুষ্ঠানকিভাবে কোনো কারণের কথা বলেনি।

তবে একটি খুতবায় কিছু বিষয়ে সমালোচনার পরই তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। কনসার্ট এবং কিছু অনুষ্ঠানের বিষয়ে সমালোচনা করেছিলেন তিনি। তাঁর মতে, ওই সব অনুষ্ঠান সৌদির ধর্মীয় বিধানেরর সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়।

তালিবের বিশ্বব্যাপী একটা পরিচিতি রয়েছে, হাজার হাজার মানুষ ইউটিউবে তাঁর খুতবা এবং কুরআন তেলাওয়াত দেখেন।

শেখ সালেহ আল তালিবের জন্ম ১৯৭৪ সালের ২৩ জানুয়ারি। তাঁর পরিবার প্রাচীন আরবের বিখ্যাত পরিবারগুলোর একটি। বিজ্ঞান, বিচারব্যবস্থা, শরিয়া বিজ্ঞানে তাঁর পরিবারের বিশেষ অবদান রয়েছে।

শেখ আল তালিব নিজেও রিয়াদের উচ্চ এবং জরুরি আদালতের পাশাপাশি অন্যান্য আদালতে বিচারক হিসাবে তিন বছর কাজ করেছেন। গ্রেপ্তার হওয়ার আগ পর্যন্ত মক্কা আল-মুকাররামার আদালতে বিচারক ছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন : ভারতে শতাধিক ব্যক্তি টমেটো ফ্লু রোগে আক্রান্ত

জনপ্রিয়