শিরোনাম

মাথাপিছু আয় বেশি দেখাতে জনসংখ্যা কম দেখানো হয়েছে : মির্জা ফখরুল

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৮, ২০২২ ২:৪০:৩৮ অপরাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক:
জনশুমারির সমালোচনা করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘মাথাপিছু আয় বেশি দেখানোর জন্য জনসংখ্যা কম দেখানো হয়েছে। যেখানে আমরা হিসাব করি ১৮ কোটি মানুষ, সেখানে দেখানো হয়েছে ১৬ কোটি। যে কোনো মানুষই বুঝবে, এর ফলে মাথাপিছু আয় বেশি দেখানোর সুযোগ হবে।’

গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আজ বৃহস্পতিবার আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন মির্জা ফখরুল।

ফখরুল বলেন, ‘তারা নিজেরাই স্বীকার করেছে যে, জনশুমারির এসব তথ্য সঠিক হয়নি। বাড়ি-বাড়ি তারা যায়নি।’

নির্বাচন প্রসঙ্গে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘গেটওয়ে নির্বাচন’—যখন নির্বাচনের দাবিতে দেশের মানুষ একটাই কথা বলছে, এদেশে কোনো নির্বাচন হতে পারে না, যদি আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকে, যখন কোনোভাবে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না বলে জোর দাবি উঠছে, যেখানে নির্বাচন কমিশন নিজে বলতে বাধ্য হচ্ছে যে একটা রাজনৈতিক পরিবেশ সৃষ্টি না হলে, সব দলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত না হলে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না, ঠিক সেই সময় এ দাবিটাকে পাশ কাটিয়ে দেওয়ার জন্য এ ধরনের বিভিন্ন সম্প্রদায়ের ওপর সাম্প্রদায়িক হামলা তাদের (আওয়ামী লীগের) এক ধরনের কৌশল। তারা সবকিছুতেই ডাইভারশন শুরু করেছে। অথচ ক্রাইসিসটা হচ্ছে গণতন্ত্র পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেছে। এজন্যই এ ধরনের ঘটনাগুলো করছে।’

ফখরুল বলেন, ‘গণতন্ত্র নেই বলে মানুষের অধিকার রক্ষা করা যাচ্ছে না। সংসদ নেই, যা খুশি লুটপাট করে নিয়ে যাচ্ছে। লোডশেডিং, বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণও তাই। এ কারণেই সবক্ষেত্রে ডাইভারশন আসল জায়গাগুলো থেকে দূরে সরিয়ে দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।’

বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘স্বাধীনতার পর থেকেই সংখ্যায় কম সেসব সম্প্রদায়ের ওপর অত্যাচার হয়েছে, নির্যাতন করা হয়েছে। তাদের জমি দখল করে নেওয়া হয়েছে। মূল কথা হলো যখনই আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে, তখনই সবচেয়ে বেশি এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে। এটাই হচ্ছে দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা। গুরুত্বের সঙ্গে আমরা বিষয়টি নিয়েছি। আমরা মনে করি, গণতন্ত্রের অভাবে এ সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস-হামলা করা হচ্ছে। বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষকে দেশ থেকে তাড়িয়ে তাদের সম্পদ লুট করা আওয়ামী লীগের একমাত্র লক্ষ্য।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘দুর্ভাগ্যজনকভাবে আওয়ামী লীগ যখনই ক্ষমতায় আসে, তখনই বিভিন্ন সম্প্রদায়ের ওপর হামলা বৃদ্ধি পায়। দেখা যায়, সম্পূর্ণভাবে তাদের লোকেরাই সাম্প্রদায়িক হামলাগুলোর সঙ্গে সরাসরি যুক্ত থাকে। আওয়ামী লীগ তাদের নিজস্ব সম্পত্তি মনে করে। তারা মনে করে, সাম্প্রদায়িক ভোটগুলো আওয়ামী লীগকে দিতে হবে।’

আরও পড়ুন : বিএনপি নেতা দেলোয়ার কারাগারে

সর্বশেষ

জনপ্রিয়