মোংলায় একাত্তরের দামেরখন্ড গণহত্যা দিবস পালন

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : সোমবার, মে ২৩, ২০২২ ৮:৪৩:৪০ অপরাহ্ণ

মাসুদ রানা, মোংলা প্রতিনিধি
মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে একাত্তরের অন্যতম ভয়াবহ দামেরখন্ড গণহত্যা দিবস পালন করা হয়েছে। ২৩ মে সোমবার সকালে মোংলায় দামেরখন্ড বধ্যভূমি স্মৃতিসৌধে বিভিন্ন সরকারি—বেসরকরি সংস্থার উদ্যোগে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন, আলোচনা সভা ও সন্ধ্যায় মোমবাতি প্রজ্জ্বলন কর্মসুচি পালন করা হয়।

সকাল ১১টায় দামেরখন্ড বধ্যভূমি স্মৃতিসৌধে মোংলা উপজেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, মোংলা নাগরিক সমাজ, সুন্দরবন ও মিঠাখালী ইউনিয়ন পরিষদ, ব্রেভ ইয়ুথ গ্রুপসহ বিভিন্ন সরকারি—বেসরকারি সংস্থার পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করা হয়। শেষে সকাল সাড়ে ১১টায় স্মৃতিসৌধ চত্বরে সুন্দরবন ইউপি চেয়ারম্যান ইকরাম ইজারদারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার কমলেশ মজুমদার, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ইদ্রিস আলী ইজারদার, নাগরিক সমাজের সভাপতি মোঃ নূর আলম শেখ, মিঠাখালী ইউপি চেয়ারম্যান উৎপল মন্ডল, টাটিবুনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুধাংশু ঢালী, সাংস্কৃতিক জোটের নাজমুল হক, শিক্ষক শেখর মন্ডল, বন্ধুসভার প্রদীপ মন্ডল, আবুল কাশেম, মঙ্গলী খাতুন ও লিজা খাতুনসহ আরো অনেকে।

এসময় বক্তারা বলেন, ১৯৭১ সালের ২৩ মে দামেরখন্ড এলাকার রজ্জব আলী ফকিরের নেতৃত্বে স্থানীয় রাজাকারদের সহায়তায় নারকীয় হত্যাযজ্ঞে শতাধিক নারী—পুরুষ শহীদ হন। নিকৃষ্টতম এই হত্যাযজ্ঞ পরিচালনার সময়ে নারীদের ইজ্জ্বতও লুন্ঠিন হয়। বক্তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় তরুন প্রজন্মকে গড়ে তোলার মধ্য দিয়ে অসাম্প্রদায়িক—গণতান্ত্রিক এবং শোষনহীন সমাজ বিনির্মানের আহ্বান জানান।

তারা আরও বলেন, দামেরখন্ডসহ সারাদেশে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে যারা নারকীয় হত্যাকান্ডের সাথে যুক্ত তাদের বিচারের দাবী জানান। আর ২৫ মার্চকে বিশ্ব গণহত্যা দিবস ঘোষণা করার জন্য জাতিসংঘের কাছে জোর দাবী জানান।

আরও পড়ুন : মোংলায় গাঁজাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী আটক

জনপ্রিয়