মোংলায় প্রবাসীর কোটি টাকার জমি জোর পূর্বক দখলের অভিযোগ

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : বুধবার, সেপ্টেম্বর ৭, ২০২২ ৫:৫২:২৩ অপরাহ্ণ

মাসুদ রানা, মোংলা প্রতিনিধি
আদালতের নির্দেশনা অমান্য করে এক প্রবাসীর ক্রয়কৃত কোটি টাকার জমি রাতের অন্ধকারে দখলে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্থানীয় প্রভাবশালী নেতাদের সহায়তায় একদল ভুমি দস্যু সন্ত্রাসীরা ওই জমিতে লোকজন দিয়ে ঘেরা-বেড়া দিলে পুলিশের বাধার মুখে তা ব্যর্থ হয়েছে। মোংলা পোর্ট পৌর শহরের জিয়া সড়কে এ ঘটনা ঘটেছে।

এব্যাপারে মোংলা থানায় অভিযোগ দেয়া হলেও প্রতিনিয়ত সন্ত্রাসী গ্রæপটি ওই জমিতে লাঠিসোটা নিয়ে প্রকাশ্য মহড়া দেয়ায় নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে প্রকৃত জমির মালিক প্রবাসী কাজী আবুল হাসানের পরিবারের সদস্যরা। এনিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। তবে পুলিশ বলছে, আদালতের নিষেধাজ্ঞা দেয়া জমিতে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে দখল করা বা আইনশৃংঙ্খলা অবনতি করার চেষ্টা করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেয়ার জন্য পুলিশ প্রস্তুত রয়েছে।

থানায় দেয়া অভিযোগ সুত্রে ও ভুক্তভোগীরা জানায়, মোংলা থানাধীন শেহলাবুনিয়া মৌজার বি আর এস ৮৩ নং-খতিয়ানে ২৫৩, ২৫৫, ১৮৩, ১৮০, ২৭৭, ২৮৮ ও ১৮৯ নং- দাগের মধ্যে হইতে পিতার বংশের কয়েক শরীকের কাছ থেকে ১৬ শতক জমি প্রবাসী মোঃ কাজী আবুল হাসান ক্রয় করে। সে জমিতে তিনি দীর্ঘদিন ভোগদখল করলেও স্থানীয় প্রিন্স সরকার পরিবারের সাথে শহরের জিয়া সড়কের কাজী আবুল হাসান’র পরিবারের লোকজনের দীর্ঘদিন এ জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। স্থানীয় কয়েকজন প্রভাবশালী নেতার ছত্রছায়ায় সন্ত্রাসীরা লোভের বশবর্তী হইয়া কাজী আবুল হাসান’র শান্তিপূর্ন ভোগ দখলে বাধা বিঘœ সৃষ্টি করে সম্পত্তি দখল করার জন্য দীর্ঘদিন থেকেই পায়তারা ও গভীর ষড়যন্ত্রে করে আসছিল পিন্স সহ তার লোকজন। এ ব্যাপারে স্থানীয় ভাবে বেশ কয়েকবার সালিশ বৈঠক হলেও প্রতিপক্ষরা তা না মানায় বাগেরহাট আদালতে মামলা দায়ের করেণ আবুল হাসান, যা আদালতে চলমান রয়েছে। এমতাবস্থায় আদালতের আদেশ অমান্য করে গত ২৪ আগষ্ট রাত আড়াইটার দিকে প্রিন্স ও তার ১০/১২ জন সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে জোর পূর্বক ওই জমি জবরদখল করার জন্য টিনের ঘেরা-বেড়া সহ বিভিন্ন কার্যক্রম করতে থাকে। বিষয়টি জমির মালিক সহ স্থানীয়রা জোর পুর্বক জমি দখলে বাধা দিলে তাদের উপর হামলা করে প্রিন্স সহ তাদের লোকজন। পরে বিষয়টি থানা পুলিশকে জানালে ওই রাতেই জমিতে ঘেরা-বেড়া বন্ধ করে দেয় এবং পুলিশের উপস্থিতি বুঝতে পেরে দ্রæত সেখান থেকে সটকে পরে সন্ত্রাসীরা। রাতের অন্ধকারে জমি দখলের বিষয় নিয়ে মোংলা থানায় অভিযোগ দিলে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। গতকাল দুপুরে পুনরায় প্রবাসী আবুল হাসান’র পরিবারের সদস্যদের প্রান নাশের হুমকী দিচ্ছে সন্ত্রাসীরা। এছাড়াও জমিতে গিয়ে প্রকাশ্যে মহড়াও দিচ্ছে ওই সকল সন্ত্রাসীরা, ফলে এলাকাবাসীর মধ্যে এ নিয়ে চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। পুনরায় যে কোন মুহুর্তে প্রবাসী আবুল হাসান’র ক্রয়কৃত জমি জোর পুর্বক দখলে নিতে পরে, যা নিয়ে গভির ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে সন্ত্রাসীরা বলে দাবী তার পরিবারের সদস্যদের।

প্রত্যাক্ষদর্শী ও জমির মালিক কাজী আবুল হাসান বলেন, আমার ক্রয় করা ওই জমি ভুমি দস্যু সন্ত্রাসীরা জোর পুর্বক দখলের জন্য রাতের আঁধারে ঘেরা-বেড়া দিতে ছিল। পুলিশ সহায়তা না করলে জমি দখল সহ আমার পরিবারের সদস্যদের অপুরনীয় ক্ষতি সম্ভাবনা ছিল। আমি আমার জমি উদ্ধার ও পরিবারের জীবনের নিরাপত্তার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি। এ ঘটনায় ৩জনকে চিহ্ণিত করে আরো অজ্ঞত নামা ৫/৭জনকে আসামী করে মোংলা থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

তবে অভিযুক্ত প্রিন্স সরকার বলেন, এ জমিটি আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তি, যা দীর্ঘদিন আবুল হাসান নামের এক প্রবাসীর লোকজন তাদের জমি বলে দবী করেন। কিন্ত আমাদের জমি আমরা ঘেরা-বেড়া দিবো তাতেও প্রবাসী আবুল হাসান’র লোকজন ও পুলিশ বাধা দিয়েছে। আমার এর প্রতিকার চাই বলে জানায় তিনি।

মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ মনিরুল ইসলাম বলেন, ওই দিন রাতে খবর পেয়ে একদল পুলিশ সেখানে গেলে প্রবাসীর জমি দখলকারীরা দ্রæত সেখান থেকে সটকে পরে। এছাড়াও দখলকারীদের আদালতের আদেশ মান্য করে কার্যক্রম চালানো ও সেখানে পুনরায় দখলের না যাওয়ার জন্য বল হয়েছে। তার পরেও যদি জোর পুর্বক আদালতের আদেশ অমান্য করে কেউ দখল করার চেষ্টা তা হলে পুলিশ কঠোর ব্যাবস্থা নিবে বলে জানায় পুলিশের এ কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন :মোংলা বন্দরের চ্যানেলে ড্রেজিং বন্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ

জনপ্রিয়