মোংলায় সাবেক স্বামীর ছুরিকাঘাতে মারাত্মক আহত যুবতী

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শুক্রবার, এপ্রিল ১২, ২০১৯ ৯:৫০:৫৯ পূর্বাহ্ণ

মোংলা প্রতিনিধি:
মোংলায় সাবেক স্বামীর ছুরির আঘাতে মারাত্মকভাবে আহত হয়েছেন সম্পা হাওলাদার নামের এক যুবতী। উপজেলার সোনাইলতলা এলাকায় ধারালো অস্ত্রদিয়ে এলোপাতাড়ি ভাবে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় কুপিয়ে যখম করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত ৯ টায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার সময় এক সন্তানের জননী সম্পা নিজ ঘরে শিশু বাচ্চাকে পড়াচ্ছিলেন। এ সময় ঘরে ঢুকে আট মাস আগে ডির্ভোস হওয়া তার সাবেক স্বামী জাহিদ ফকির ধারালো অস্ত্র দিয়ে সম্পাকে শরিরের বিভিন্ন অংশে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। এসময় ঘরে থাকা সম্পার চাচীর চিৎকারে স্থানীয় লোকজন ছুটে আসলে দ্রুত পালিয়ে যায় জাহিদ ফকির।

এর পর সম্পাকে উদ্ধার করে প্রথমে মোংলা উপজেলা স্বাথ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সম্পার অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে খুলনা মেডিকেলে নেওয়ার পরামশ দেন কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাক্তার রাফিউল হাসান ।

সম্পার ভাই সজিব দাবী করেন, কয়েক বছর পুর্বে তার বোনের সাথে একই এলাকার জাহিদ ফকিরের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই জাহিদ নিয়মিত নেশা করে তার বোনকে মারধর করতো। এ জন্য গত আট মাস আগে জাহিদকে তার বোন সম্পা ডিভোর্স দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে এর আগেও বেশ কয়েকবার আক্রমন করছিল জাহিদ। কিন্ত ঘরে কেউ না থাকায় বৃহস্পতিবার রাত ৯ টায় জাহিদ তার বোনকে হত্যা করার উদ্দ্যোশ্যে ধারালো অস্ত্রদিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে পালিয়ে যায়।

মোংলা উপজেলা স্বাথ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ রাফিউল হাসান বলেন, রাতে সম্পাকে রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় কিন্ত তার মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর জখম থাকায় রক্ত বন্ধ করা যাচ্ছেনা। তাই দ্রুত তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এব্যাপারে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান সম্পার বাবা জালাল হাওলাদা।

আরও পড়ুন: মোংলার হারবাড়িয়া থেকে তিনজনের মৃতদেহ ও একটি গলাকাটা লাশ উদ্ধার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

জনপ্রিয়