রাশিয়া কাখোভকা বাঁধ উড়িয়ে দেওয়ার ছক কষছে : জেলেনস্কি

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, অক্টোবর ২২, ২০২২ ১১:৩৭:০১ পূর্বাহ্ণ
ইউক্রেনের নিপ্রো নদীর নোভা কাখোভকা বাঁধ। ছবি : রয়টার্স

চলমান বার্তা ডেস্ক:
ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি দেশের দক্ষিণাঞ্চলে একটি জলবিদ্যুৎ কেন্দ্রের বাঁধ উড়িয়ে দেওয়ার ছক কষার অভিযোগ করেছেন রাশিয়ার বিরুদ্ধে। বাঁধ উড়িয়ে দেওয়া হলে ‘বড় ধরনের বিপর্যয়’ ঘটবে বলে তিনি সতর্ক করেন।

বৃহস্পতিবার রাতের এক ভাষণে জেলেনস্কি বলেন, ইউক্রেনের তথ্যানুযায়ী, নিপ্রো নদীর নোভা কাখোভকা বাঁধটি রুশ বাহিনী খনন করেছিল। খবর রয়টার্স ও বিবিসির।

জেলেনস্কি পশ্চিমা নেতাদের কাছে অনুরোধ করেছেন রাশিয়াকে সতর্ক করার জন্য যেন তারা এমন একটি বাঁধ উড়িয়ে না দেয়। এ বাঁধটি ক্ষতিগ্রস্থ হলে দক্ষিণ ইউক্রেনের একটি বিশাল এলাকা প্লাবিত হবে।

বিবিসি জানায়, বাঁধটি এখন রাশিয়ার দখলে আছে। তবে ইউক্রেনীয় বাহিনী বাঁধটির কাছে অগ্রসর হচ্ছে। রাশিয়া এরই মধ্যে নোভা কাখোভকা বাঁধে ইউক্রেনীয় সেনাদের ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার অভিযোগ করেছে।

কিন্তু টিভিতে প্রচারিত ভাষণে জেলেনস্কি বলেছেন, রুশ বাহিনী বাঁধের ভেতরের দিকে বিস্ফোরক পেতে রেখেছে এবং এটি উড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করছে।

বাঁধটি ধ্বংস হয়ে গেলে ইউরোপের সবচেয়ে বড় জাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের শীতলীকরণ ব্যবস্থায় ব্যাঘাত ঘটবে বলে জানান জেলেনস্কি।

এ পরিস্থিতিতে বিশ্বের প্রত্যেকেরই খুব দ্রুত এবং শক্তিশালীভাবে রাশিয়ার এই সন্ত্রাসী হামলা ঠেকাতে তৎপর হওয়া উচিত বলে তিনি মন্তব্য করেন।

সতর্ক করে দিয়ে জেলেনস্কি বলেন, ওই জলবিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিশাল জলাধার আছে। রাশিয়া বাঁধ উড়িয়ে দিলে এর পাদদেশের ৮০ টিরও বেশি বসতিসহ খেরসন অঞ্চলও বন্যায় ভেসে যাবে। এতে লাখো মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

রাশিয়া এরই মধ্যে বাঁধটিতে ইউক্রেনীয় বাহিনীর হামলা চালানোর যে অভিযোগ করছে, সেটি তাদের নিজেদের দোষ কিয়েভের ওপর চাপানোর লক্ষণ বলেই মনে করছেন ইউক্রেনের কর্মকর্তারা। তারা বলছেন, রুশ বাহিনী হয়ত বাঁধটি উড়িয়ে দিয়ে এর জন্য কিয়েভকে দোষারোপ করতে পারে।

আরও পড়ুন : ভারতে গোমাংস নিয়ে প্রশ্ন; বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র বিক্ষোভ

জনপ্রিয়