রেকর্ড সংখ্যক গাড়ি নিয়ে মোংলায় বিদেশি জাহাজ

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : রবিবার, আগস্ট ৭, ২০২২ ৮:০৭:১১ অপরাহ্ণ

মাসুদ রানা, মোংলা প্রতিনিধি
মোংলা বন্দন সৃষ্টির ৭১ বছর পর রেকর্ড সংখ্যক বিকন্ডিশন গাড়িবাহী বাণিজ্যিক জাহাজ মোংলা বন্দরে নঙ্গর করেছে। দেশের ২০২২-২৩ অর্থ বছরের বাজেট প্রণয়ন ও পদ্মা সেতু চালু হওয়ার পর এই প্রথম এক সাথে ১ হাজার ২৮০টি গাড়ী নিয়ে সিঙ্গপুর থেকে জাহাজটি খালাস করার জন্য ৭ আগষ্ট রোববার সকাল ১০টায় বন্দরে ৫নাম্বর জেেিত ভিরে।

এছাড়া মোংলা বন্দর জেটির সেডে দীর্ঘদিন পড়ে থাকা বিভিন্ন ব্যান্ডের ১১৫টি রিকন্ডিশন গাড়ী নিলামে তুলছে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। দীর্ঘ দিন প্রায় সাড়ে ৬ হাজার হাজার গাড়ী নিলামের অপেক্ষায় বন্দরের ইয়ার্ড ও সেডে পড়ে আছে। আর এবারই প্রথম গাড়ি নিলামে অনলাইন অংশ গ্রহন করতে পারবেন ব্যাবসায়ীরা। তাই বন্দরে গাড়ী রাখার জায়গা খালি ও শুল্ক জটিলতা দূর করে রাজস্ব আদায়ের লক্ষে রোববার মোংলা কাস্টম হাউজ এ নিলামের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বন্দর ও কাস্টমস সুত্রে জানায়, বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানী করা রিকন্ডিশন গাড়ী মোংলা বন্দর দিয়ে খালাস করে তা জেটির ইয়ার্ড ও সেডে সারীবদ্ধ করে রাখা হয়। আমদানি করা এসব গাড়ি কোম্পানীরা ৩০ দিনের মধ্যে বন্দর জেটি থেকে ছাড় করানোর নিয়ম থাকলেও আমদানীকারকরা তা করেননি, ফলে কাস্টমস কর্তৃপক্ষের নিয়োমানুযায়ী ৭ আগষ্ট রোববার গাড়ীগুলো বিক্রির জন্য নিলামে তুলে। দীর্ঘ দিন প্রায় সাড়ে ৬ হাজার গাড়ী শুল্ক জটিলতার কারনে নিলামের অপেক্ষায় বন্দরের ইয়ার্ড ও সেটে পড়ে ছিল। শুল্ক ও আইনী জটিলতা শেষে তা থেকে ১১৫টি গাড়ী নিলামের জন্য দরপত্র আহবান করেন মোংলা কাষ্টমস হাউজ। এবারের নিলামে প্রথমবারের মত বিভিন্ন জায়গা থেকে অনলাইন নিলামে অংশগ্রহণ করতে পারবে গাড়ী ক্রয় ইচ্ছুক ব্যাক্তি ও ব্যাবসায়ীরা।

এদিকে, পদ্মা সেতু চালু হওয়ার পর এবং দেশের ২০২২-২৩ অর্থ বছরের বাজেট প্রনয়নের এই প্রথম সর্বোচ্চ গাড়ী বহন কারে মোংলা বন্দরে খালাস করছে মালশিয়ান পাতাকাবাহী বিদেশী বানিজ্যিক জাহাজ “এমভি মালশিয়া স্টার”। এ জাহাজে এক সাথে ১২শ ৮০ টি গাড়ী বোঝাই করে আনে এ বন্দরে। প্রথমে এ রিকন্ডিশন গাড়ীগুলো জাপান থেকে জাহাজে লোড করা হয়, পরে জাপান হয়ে সিঙ্গাপুর। বানিজ্যিক এ জাহাজটি গত ৪ আগষ্ট সিঙ্গাপুর সমুদ্র বন্দর থেকে মোংরা বন্দরের উদ্দোশ্যে ছেড়ে আসে। ৫ হাজার ৫০২ মেঃ টন বহনকারী জাহাজটি রোববার সকালে বন্দরের ৫ নম্বর জেটিতে নঙ্গর করে। আর সেখানে থাকা ১২শ ৮০ টি গাড়ী এ জাহাজটি খালাস করতে ২ দিন সময় লাগবে বলে জানায় স্থানীয় শিপিং এজেন্ট কর্তৃপক্ষ।

অপরদিকে, রোববার সকাল থেকে বন্দরে সেডে পরে থাকা নিলামকৃত গাড়ীর মধ্যে রয়েছে হাইয়েস, নোহা, প্রাডো, নিশান পেট্রল, জাম ট্রাকসহ অন্যান্য দামী ব্র্যান্ডের ১১৫টি গাড়ী। গাড়ী নিলামের ৮৪টি লটের অনুকুলে বিভিন্ন জায়গায় দরপত্র বিক্রি হয়েছে যা ৭ আগষ্ট জমা দেয়া হচ্ছ মোংলা কাস্টমস অফিস সহ এর সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে। আগামী ১১ আগষ্ট সকাল ১০টার সময় দর পত্র জমা দেয়া সকলের সামনে ১১৫টি বিলাশবহুল গাড়ী নিলামের উম্মুক্ত করা হবে। সর্বচ্চ দরদাতাকে তাদের নিলামে ক্রয় করা গাড়ী পরবর্তীতে নিয়মানুযায়ী বুঝিয়ে দেয়া হবে বলে জানায় কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের (সদস্য হারবার ও মেরিন) কমডোর আব্দুল ওয়াদুদ তরফদার জানান, বন্দরে আমদানীকৃত গাড়ী খালাস ও নিলাম না দেয়ায় জেটি এলাকায় গাড়ীর জট বা পন্য রাখার সমস্যা তৈরী হয়। তবে নিলাম প্রক্রিয়া চালু রাখলে গাড়ী বা অন্যান্য পন্য রাখতে ব্যাবসায়ীদের সুবিধাও হবে অন্যদিকে সরকারের রাজস্ব আদায় করা সম্ভব হবে।

মোংলা কাস্টমস হাউজ এর ডেপুটি কমিশনার মোঃ মেহবুব হক জানান, পদ্মা সেতু চালু হওয়ায় ব্যাবসায়ীরা মোংলা বন্দর ব্যাবহার করার আগ্রহ প্রকাশ করছে। বন্দরে গাড়ীর জট কমাতো নিলাম প্রক্রিয়া চালু রয়েছে। এ নিলাম প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে এবং আমদানীকারক প্রতিষ্ঠান যদি সময় মতো খালাস করিয়ে নেয় তাহলে রাজস্ব আদায়ও আগের তুলনায় অনেকগুন বৃদ্ধি পাবে বলে জানান কাস্টমস’র এ কর্মকর্তা।

২০০৯ সালের ৩ জুন হক্স-বে অটোমোবাইল কোম্পানি প্রথম ২৫৫টি রিকন্ডিশন্ড গাড়ি আমদানির মধ্য দিয়ে মোংলা বন্দরে গাড়ি রাখার কার্যক্রম শুরু হয়। আর গত অর্থ বছরে মোংলা বন্দর দিয়ে ২০ হাজার ৮০৮টি গাড়ী আমদানী করা হয়েছে।

আরও পড়ুন :রামপাল তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কয়লা বোঝাই প্রথম জাহাজ মোংলা বন্দরে

জনপ্রিয়