শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ নিয়ে যা বললেন শিক্ষামন্ত্রী

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : মঙ্গলবার, জানুয়ারি ১৮, ২০২২ ৬:৩৫:৪৩ অপরাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক
শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের বিষয়ে সরকার এখনই কিছু ভাবছে না। আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলনে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত কার্য অধিবেশন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান শিক্ষামন্ত্রী।

রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত তিনদিনের এ সম্মেলন প্রধানমন্ত্রী তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে উদ্বোধন করেন।

এসময় শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা আগামী ২-১ দিনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সঙ্গে বৈঠকে বসব। তাদের মতামত নিয়ে আমরা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করবো। পরিস্থিতি অনুযায়ী আমরা বিভিন্ন বিকল্প নিয়ে চিন্তা করবো।

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে ২০২০ ও ২০২১ সালে এ সম্মেলন হয়নি। ফলে এবারের ডিসি সম্মেলনকে প্রশাসন বেশ গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে। এ সম্মেলনে বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকগণ সরকারের নীতি নির্ধারণী বিষয়, উন্নয়ন কর্মসূচি ও অন্যান্য বিষয় সম্পর্কে নির্দেশনা গ্রহণ করবেন।

কর্মসূচি অনুযায়ী এবার সম্মেলনে ২১টি কার্যঅধিবেশনসহ মোট ২৫টি অধিবেশন থাকবে। এর মধ্যে আজ প্রথম দিন সাত, আগামীকাল দ্বিতীয় দিন আট এবং তৃতীয় দিন ১০টি অধিবেশন থাকবে। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এবং প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কর্মঅধিবেশনে যুক্ত হয়ে জেলা প্রশাসকদের প্রস্তাবনা গ্রহণ করবেন এবং সেই অনুযায়ী নির্দেশনা দেবেন।

গতকাল সোমবার সচিবালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিপরিষদ সচিব ড. খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সম্মেলনের বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন।

করোনা পরিস্থিতির বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘ডিসিদের আমরা নির্দেশনা দিয়েছি তাদের গানম্যান, গাড়িচালক এবং তাদের সঙ্গে যারা আসবেন সবাইকে অবশ্যই আরটি পিসিআর পরীক্ষা করে আসতে হবে। এরই মধ্যে দুজন বিভাগীয় কমিশনার এবং পাঁচজন জেলা প্রশাসকের করোনা শনাক্ত হয়েছে। রাজশাহী ও বরিশালের বিভাগীয় কমিশনারের করোনা ধরা পড়েছে। কক্সবাজার, রাজশাহী, পটুয়াখালী, লক্ষ্মীপুর ও চুয়াডাঙ্গার ডিসির করোনা শনাক্ত হয়েছে।

জনপ্রিয়