সৌরভকে ভারতীয় বোর্ড থেকে সরানোয় কলিকাতায় মামলা

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, নভেম্বর ৫, ২০২২ ১১:১৭:১৪ পূর্বাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক:
ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি ছিলেন দেশটির সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি। তার জায়গায় নতুন সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয়েছে ১৯৮৩ বিশ্বকাপে ভারতকে শিরোপা জেতানো পেসার রজার বিনিকে। তবে সৌরভের বিদায়কে ভালোভাবে নেয়নি তার ভক্ত সমর্থকরা। বেআইনি ভাবে তাকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।

শুক্রবার (৪ নভেম্বর) রমাপ্রসাদ সরকার নামে কলকাতা হাইকোর্টের এক আইনজীবী সৌরভকে না-রাখা নিয়ে প্রশ্ন তুলে জনস্বার্থ মামলা করেছেন। মামলাটি প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব এবং বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চে দায়ের করা হয়েছে। আগামী সপ্তাহে শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে।

মামলার এজহারে এই আইনজীবী উল্লেখ করেন, ‘বিসিসিআই-এর সভাপতি এবং সচিব পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে সুপ্রিম কোর্টের রায় রয়েছে। সৌরভকে বাদ দেওয়ার ক্ষেত্রে সেই রায় ঠিক মতো মানা হয়নি! কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের পুত্র জয় শাহ যদি পুনর্বার বোর্ডে থাকতে পারেন, তবে সৌরভ নয় কেন? তাকে কি রাজনৈতিক কারণে সভাপতি পদ থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে?’

সুপ্রিম কোর্টের আইন অনুযায়ী, রাজ্য সংস্থায় এবং কেন্দ্রীয় বোর্ডে ৬ বছর করে দায়িত্বে থাকতে পারবেন এক জন আধিকারিক ব্যক্তি। কিন্তু প্রথম মেয়াদে তিন বছর সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করায় আরও তিন বছর বোর্ডের সভাপতি থাকার সময় ছিল সৌরভের। কিন্তু দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের ছেলে জয় শাহ সচিব পদে থেকে গেলেও রাখা হয়নি ৫০ বছর বয়সী সৌরভকে।

এদিকে ভারতীয় বোর্ড থেকে সরে যাওয়ার পর বাংলার ক্রিকেট সংস্থার সভাপতি পদে নির্বাচনে লড়াই করার কথা ছিল সৌরভ গাঙ্গুলির। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করায় সৌরভের বড়ভাই স্নেহাশিস গঙ্গোপাধ্যায় বাংলার ক্রিকেট সংস্থার প্রধান হন।

আরও পড়ুন : আফগানের বিরুদ্ধে কষ্টার্জিত জয়েও স্বস্তিতে নেই অস্ট্রেলিয়া

জনপ্রিয়