২০২৬ সালের বিশ্বকাপ তিন দেশের ১৬ শহরে

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শুক্রবার, জুন ১৭, ২০২২ ৪:৪২:২০ অপরাহ্ণ

চলমান বার্তা ডেস্ক:
ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো জানিয়েছেন, ২০২৬ সালের বিশ্বকাপ তিন দেশে আয়োজন হবে। কানাডা, মেক্সিকো ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে হবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ফুটবল যজ্ঞ। প্রথমবার বিশ্বকাপে রেকর্ড সংখ্যক দলও খেলবে। তিন দেশের ১৬টি শহরে ৪৮টি দল অংশ নেবে। এবারই শেষ ৩২ দল খেলবে বিশ্বকাপে।

এএফপির খবরে জানা গেছে, ১৯৯৪ সালের পর আবার উত্তর আমেরিকায় ফিরেছে বিশ্বকাপ। এরই মধ্যে ১৬টি ভেন্যুর নাম প্রকাশ করা হয়েছে। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ১১টি, মেক্সিকোতে তিনটি ও কানাডার দুটি ভেন্যুতে খেলা হবে।

টুর্নামেন্টের ৮০টি ম্যাচের মধ্যে মোট ৬০টি ম্যাচ যুক্তরাষ্ট্রে হবে। কোয়ার্টার ফাইনালের পরের সব নকআউট ম্যাচ যুক্তরাষ্ট্রের ভেন্যুতে হবে।

মেক্সিকো সিটির আইকনিক অ্যাজটেকা স্টেডিয়ামে ১৯৭০ এবং ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপের ফাইনাল হয়েছিল। গুয়াদালাহারা, মেক্সিকো সিটি ও মন্তেরেইয়ের শহরের তিনটি ভেন্যুতে হবে খেলা। আর কানাডায় বিশ্বকাপ হবে ভ্যাঙ্কুভার ও টরন্টো শহরে।

যে ভেন্যুগুলোত খেলা হবে :

যুক্তরাষ্ট্রের ১১ স্টেডিয়াম
আটলান্টার মার্সিডিজ-বেঞ্জ স্টেডিয়াম, বোস্টনের জিলেট স্টেডিয়াম, ডালাসের এটি অ্যান্ড টি স্টেডিয়াম, হিউস্টনের এনআরজি স্টেডিয়াম, কানসাস সিটির অ্যারোহেড স্টেডিয়াম, লস অ্যাঞ্জেলসের সোফি স্টেডিয়াম, নিউইয়র্ক/ নিউজার্সির মেটলাইফ স্টেডিয়াম, মায়ামির হার্ড রক স্টেডিয়াম, ফিলাডেলফিয়ার লিঙ্কন ফিন্যান্সিয়াল স্টেডিয়াম, সান ফ্রান্সিসকো বের লিভাইস স্টেডিয়াম, সিয়াটলের লুমেন ফিল্ড স্টেডিয়াম।

মেক্সিকোর তিনটি স্টেডিয়াম
গুয়াদালাহারার এস্তাদিও আকরোন, মেক্সিকো সিটির এস্তাদিও আজতেকা এবং মন্তেরেইয়ের এস্তাদিও বিবিভিএ বানকোমার।

কানাডার দুটি স্টেডিয়াম
টরন্টোর বিএমও ফিল্ড, ও ভ্যাঙ্কুভারের বিসি প্লেস।

আরও পড়ুন : ব্যর্থতার ব্যাখ্যা নেই সাকিবের কাছে

জনপ্রিয়